বেতনছাড়া পৃথিবীর সবচেয়ে কঠিন চাকরির একটি সত্যিকারের ইন্টারভিউ

১৬০ পঠিত ... ১৪:২৫, মে ১২, ২০১৯

পৃথিবীর সবচেয়ে কঠিন চাকরি। টাফেস্ট জব, যেখানে বছরের প্রতিটা দিন, চব্বিশ ঘন্টা বিরতিহীনভাবে কাজ করতে হয়, অথচ কোনো বেতন নেই। কেউ কী করতে চাইবে এমন চাকরি? অথচ বিশ্বে হাজারো নারী তা করে যাচ্ছেন। এই ভিডিওটি সেটিই প্রমাণ করে।

বছর তিনেক আগে আমেরিকার একটি সংস্থা একটি 'ফেক জব' অর্থাৎ নকল চাকরির বিজ্ঞাপন দেন পত্রিকায়। সেখানে লেখা হয়, এটা পৃথিবীর কঠিনতম চাকরি (টাফেস্ট জব), পজিশন লেখা হয়, 'ডিরেক্টর অব অপারেশন্স'!

ফেক জব হলেও, স্কাইপের মাধ্যমে আবেদনকারীদের সত্যিকারের ইন্টারভিউই নেয়া হয়েছিল। সেখানে আবেদনকারীদের বলা হয় এই চাকরিতে তাদের কী কী কাজ করতে হবে। তাদের চব্বিশ ঘন্টা কাজ করতে হবে, বিরতিহীনভাবে দাঁড়িয়ে থাকতে হবে। যে কোনো প্রয়োজনে যে কোনো কাজ করতে হতে পারে, সব বিষয়ে দক্ষতা থাকতে হবে। কোনো ছুটি নেই, অবসর নেই, এমনকি ক্রিসমাস কিংবা যেকোনো উৎসব আয়োজনে কাজের চাপ আরও বেড়ে যেতে পারে। ইন্টারভিউদাতারা বিরক্ত হতে থাকেন, হওয়াটাই স্বাভাবিক। 

স্যালারির প্রসঙ্গ আসতেই যিনি ইন্টারভিউ নিচ্ছেন তিনি বলেন, এই 'টাফেস্ট জব' অর্থাৎ কঠিনতম চাকরিতে কোনো স্যালারি নেই। আবেদনকারীদের প্রতিক্রিয়া ছিল এমন, 'এত নিষ্ঠুর কাজ এবং তাও কোনো স্যালারি ছাড়া, এই কাজ কে করবে?' ইন্টারভিউ গ্রহীতা উত্তর দেন, পৃথিবীতে হাজারো মায়েরা তা করে যাচ্ছেন, দিনের পর দিন। ডিরেক্টর অব অপারেশন্স, এই পোস্টটির অন্য নাম হলো, 'মা'!

ইন্টারভিউদাতারা সেই মুহুর্তেই পুরো ব্যাপারটি ধরে ফেলেন এবং মা'কে নিয়ে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন। তারা উপলব্ধি করেন যে মায়েরা যে কাজ কোনো মূল্যায়ন ছাড়াই দিনের পর দিন, যুগের পর যুগ ধরে করে আসছেন, এটা পৃথিবীর কঠিনতম কাজ, যা করে তারা কোনো বেতন পান না। যে কাজগুলো একটা চাকরি হলে তা করতে চাইত না পৃথিবীর কেউই!

অসাধারণ এই উপলব্ধিটি নিজেও অর্জন করতে দেখে নিতে পারেন 'ওয়ার্ল্ডস টাফেস্ট জব' নামক দুর্দান্ত এই প্র্যাংক ইন্টারভিউয়ের ভিডিওটি।

১৬০ পঠিত ... ১৪:২৫, মে ১২, ২০১৯

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

রম্য

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top