এই ৪০টি ছবি দেখলেই আপনি বুঝতে পারবেন, জাপান কেন অন্য দেশের চেয়ে আলাদা

২৭১৮ পঠিত ... ১৭:১১, মার্চ ০৩, ২০১৯

এনিমে কার্টুন, সুমো রেসলিং বা চেরি ফুলের জন্য জাপান পুরো পৃথিবীর মানুষের কাছে পরিচিত। আবার আমরা এটাও জানি, জাপানিরা অনেক পরিশ্রমী হয়, প্রযুক্তিতে জাপান সবার চাইতে একটু বেশি এগিয়ে থাকে। কিন্তু এসবের বাইরে জাপানে যে খুবই অভিনব ডিজাইনের টয়লেট আছে এটা কয়জনেরই বা জানা আছে? আপনার ট্রেন সবসময় সঠিক সময়ে আসছে, সেটা কি আপনি কখনও কল্পনা করতে পারেন? ড্রেনে যদি রঙ-বেরঙের মাছ সাঁতরাতে দেখা যায়, তাহলে তো অবাক হওয়ারই কথা। 'আর্কিটেকচার এন্ড ডিজাইন' ওয়েবসাইটটি জাপানের সংস্কৃতির এমনই কিছু অদ্ভুত উদ্ভাবনের সংকলন করেছে যা দেখে আপনার জীবনে একবার হলেও জাপানে ঘুরে আসতে ইচ্ছা হবে।


১# জাপানে অধিকাংশ বাথরুমের দেয়ালে বাচ্চাকে বসিয়ে রাখার জন্য আলাদা সিট থাকে।

 

২# দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের সুবিধার্থে পানীয় ক্যানের উপর ব্রেইলে পানীয়ের নাম লেখা থাকে।

 

৩# জাপানি দর্শকেরা বিশ্বকাপে তাদের ম্যাচের পর স্টেডিয়াম পরিষ্কার করে এরপর বাড়ি ফিরেছিলেন।

 

৪# এ ধরনের টয়লেট প্রায়ই জাপানে দেখবেন যেখানে হাত ধোয়ার পানি ফ্ল্যাশে চলে যায় পুনরায় ব্যবহারের জন্য।

 

৫# ম্যানহোল বলে কি সুন্দর ঢাকনা পেতে পারে না?   

 

৬# বেশিরভাগ জাপানি স্কুলেই কোন তত্ত্বাবধায়ক নেই। শিক্ষার্থীরা স্কুলের প্রতি কৃতজ্ঞতাস্বরূপ এবং আরও কর্মক্ষম হয়ে বেড়ে উঠতে নিজেরাই স্কুল পরিষ্কার করে।

 

৭# জাপানের হাসপাতালের খাবারও জিভে জল নিয়ে আসবে! সন্তান জন্ম দেওয়ার পর একজন মায়ের কয়েক বেলার খাবার।

 

৮# জাপানের বুলেট ট্রেন এতটাই মসৃণ চলে যে পয়সাটিরও পড়ে যাবার সুযোগ নেই।

 

৯# জাপানে একজন ভুলে নিজের শপিং ব্যাগ রাস্তায় ফেলে রেখে গিয়েছিলেন। পরদিন তার খোঁজে এসে দেখেন কেউ একজন সেটিকে সযত্নে একটি গাছতলায় এনে রেখে দিয়েছে।

 

১০# জাপানের ড্রেনেও কই নামক মাছ চলাফেরা করে।

 

১১# একটা মানুষও পাশের লাইনে চলে যাননি।  

 

১২# জাপানের টয়লেটে এক ধরনের বাটন আছে যা চাপলে হোয়াইট নয়েজ/পানির শব্দ হয় যেন টয়লেট ব্যবহারের সময় ব্যক্তিগত শব্দ বাইরের মানুষের কানে না যায়।

 

১৩# যাত্রীরা টোকিওতে একটি ট্রেন কারকে ঠেলে বাঁকা করে রেখেছে। কারণ প্লাটফর্ম আর ট্রেনের মাঝে একজন নারী আটকা পড়ে ছিলেন।

 

১৪# জাপানের একটি আবিষ্কার হল ছাতার লকার। এখানে রাখলে ছাতা সাথে করে নিয়ে বিল্ডিংয়ে ঢুকতে হবে না৷ আর কেউ ভুলে আপনার ছাতাও নিতে পারবে না৷  

 

১৫# এই টয়লেট ম্যাপে বলে দেয়া আছে কোন টয়লেট ফাঁকা আর কোনটায় মানুষ আছে৷

 

১৬# চুইংগামের বাক্সের ভেতর অনেকগুলো ছোট কাগজ থাকে তাতে চিবানো চুইংগাম ফেলার জন্য।

 

১৭# কোথাওই অগোছালো হবে না বলে যেন জাপানিরা পণ করেছে।  

 

১৮# জাপানের এই শপিং মলে ফ্রিজ রাখা আছে। যেখানে ক্রেতারা সাথা থাকা বা কেনাকাটা করা খাবার নিশ্চিতে ফ্রিজে রেখে অন্যান্য কেনাকাটা করতে পারেন।

 

১৯# জাপান থেকে বই অর্ডার করায় বইয়ের সাথে একটি চিঠি আর সুন্দর ছোট্ট অরিগ্যামি পাঠানো হয়েছে।  

 

২০# স্মার্টফোন পরিষ্কার করার জন্য স্মার্টফোন ওয়াইপার ডিস্পেনসার। সাথে ওয়াইফাই!

 

২১# এই জাপানি হোটেলের বিছানার পাশে ল্যাম্পের অর্ধেক অংশও জ্বালিয়ে রাখা যায়।

 

২২# জাপানের প্রায় সবাই পাশাপাশি সারির গাড়িগুলো বিপরীতমুখী করে পার্ক করে।

 

২৩# ট্রেনের জন্যও তারা লাইন ধরে অপেক্ষা করে।

 

২৪# জাপানের এয়ারপোর্টের কর্মীরা রঙ মিলিয়ে ব্যাগ সাজিয়ে রাখেন।  

 

২৫# জাপানের টরেইয়ু সুবাসা ট্রেনে আরামদায়ক সফরের জন্য রয়েছে ফুটবাথের ব্যবস্থা।

 

২৬# ট্রেনে বাচ্চাদের বসার জায়গা।

 

২৭# জাপানের অনেক রেস্টুরেন্টে খাবারের নকল ডিসপ্লে সাজিয়ে রাখা হয় আসল খাবার দেখতে কেমন হবে তা বোঝানোর জন্য।

 

২৮# জাপানের এই লিফটে একটা সিট আছে যা খুব প্রয়োজনে পড়লে টয়লেট হিসেবেও ব্যবহার করা যায়৷  

 

২৯# ওসাকার একটি অফিসের লিফটে রয়েছে এমন একটি ছাতার চিহ্ন, বাইরে বৃষ্টি হলে যা জ্বলে উঠে।

 

৩০# জাপানের একটি হোটেল রাত চারটায় এক মিনিটের জন্য ইন্টারনেট বন্ধ থাকায় ক্ষমা চেয়েছে।  

 

৩১# জাপানের কিছু পর্যটন কেন্দ্রে স্মার্টফোন ধরে রাখার জন্য স্ট্যান্ড আছে, যাতে আপনিও তুলতে পারেন সুন্দর একটি সেলফি।

 

৩২# এই জাপানিজ ক্যাবে একটি বাটন আছে যেটি চাপ দিলে চালক বুঝতে পারবেন যে, আপনি চাচ্ছেন গাড়ি আরেকটু আস্তে চলুক।

 

৩৩# জাপানের এটিএম বুথে বয়স্কদের হাঁটার ছড়ি রাখার ব্যবস্থাও থাকে।

 

৩৪# এই ট্রায়াল রুমে নতুন কাপড় পরে দেখার আগে মুখ ঢেকে নেওয়ার ব্যবস্থা আছে। যাতে মুখের মেকআপ কাপড়ে না লেগে যায়।

 

৩৫# ভেন্ডিং মেশিনে মুরগির সতেজ ডিমও আপনি খুঁজে পাবেন জাপানে।  

 

৩৬# টুথপিকের মাথায় রয়েছে মিন্ট ফ্লেভারের প্রলেপ।  

 

৩৭# ফ্রিজে রাখতে যেন সুবিধা হয় সেজন্য জাপানে চতুষ্কোণ তরমুজ বিক্রি করা হয়।

 

৩৮# মানিব্যাগ বাইরে রেখে ঘুমিয়ে পড়া সম্ভবত শুধু জাপানের ট্রেনেই সম্ভব।  

 

৩৯# ট্রেনেও রয়েছে স্মোকিং জোন।

 

৪০# সিঁড়ির রেলিংও সিঁড়ির সাথে বেঁকে যায়।   

 

২৭১৮ পঠিত ... ১৭:১১, মার্চ ০৩, ২০১৯

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

রম্য

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top