কারগিল যুদ্ধে বাবাকে হারানো ভারতীয় মেয়েটি যুদ্ধ করছে যুদ্ধের বিরুদ্ধে

১২২৭ পঠিত ... ২১:১২, মার্চ ০১, ২০১৯

কোন পরিস্থিতির জন্যই যুদ্ধ সমাধান নয়। প্রাণহানি ও ধ্বংসযজ্ঞের সাথে যুদ্ধ যে অস্থিতিশীল অবস্থার জন্ম দেয়, তা সমাধানের দিকে খুব কমই যায়। সেই ৪৭-এর পর থেকেই ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে বৈরিতা বারবার ডেকে এনেছে যুদ্ধ ও সংঘাত, যাতে দুই দেশেরই লাভের চেয়ে ক্ষতি হয়েছে বহুগুণ বেশি। রাষ্ট্রীয় থেকে ব্যক্তিগত, সব পর্যায়েই তাদের বৈরী সম্পর্ক বয়ে এনেছে ভয়াবহ সব ক্ষয়ক্ষতি।

গুরমেহার কৌর দিল্লী বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষার্থী, যিনি দুই বছর বয়সে ১৯৯৯ সালের কারগিল যুদ্ধে তার বাবা ক্যাপ্টেন মানদীপ সিংকে হারিয়েছেন। শৈশব থেকেই তিনি তার বাবার মৃত্যুর জন্য পাকিস্তানকে দায়ী করতেন। একবার একজন বোরখা পরা নারীকে তিনি ছুরিকাঘাত করতে উদ্যত হয়েছিলেন, কারণ তার মনে হয়েছিল তার বাবার মৃত্যুর জন্য পাকিস্তানের প্রতিটা মানুষ দায়ী। কিন্তু ধীরে ধীরে তিনি উপলব্ধি করেন, পাকিস্তান নয়, তার বাবার মৃত্যুর জন্য দায়ী 'যুদ্ধ'। ২০১৭ তিনি সালে যুদ্ধ সমাপ্ত করে শান্তির আহ্বান জানাতে একটি ভিডিও বানান, যা আলোচনা-সমালোচনা দুটিরই সম্মুখীন হয়। ভারত-পাকিস্তান বর্তমান পরিস্থিতির প্রক্ষাপটে ভিডিওটি সম্প্রতি আবারও আলোচনায় এসেছে এখন। যুদ্ধ সম্পর্কে আপনার অবস্থান পক্ষে হোক বা বিপক্ষে, যুদ্ধের কারণে শৈশবেই বাবা হারানো ভারতীয় এই মেয়েটির বক্তব্যে একবার চোখ বুলিয়ে নিতে পারেন। 

 

১#

 

২#

 

৩#

 

৪#

 

৫#

 

৬#

 

৭#

 

৮#

 

৯#

 

১০#

 

১১#

 

১২#

 

১৩#

 

১৪#

 

১৫#

 

১৬#

 

১৭#

 

১৮#

 

১৯#

 

২০#

 

২১#

 

২২#

 

২৩#

 


২৪#

 

২৫#

 

২৬#

 

২৭#

 

২৮#

 

২৯#

 

ভিডিওটি দেখতে চাইলে-

১২২৭ পঠিত ... ২১:১২, মার্চ ০১, ২০১৯

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

রম্য

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top