মাথা ব্যথা সারাতে এক নতুন দিগন্ত খুলে দিলো পদ্মা সেতু

১৮৩ পঠিত ... ১৪:০৮, জুলাই ১২, ২০১৯

মাথা ব্যথার চিকিৎসায় এক যুগান্তকারী ইতিহাস সৃষ্টি করেছে পদ্মা সেতু। এইডস এবং ক্যান্সারের পরেই পৃথিবীর সবচেয়ে দুরারোগ্য ব্যাধি মাথা ব্যথা ভালো হয়ে যাচ্ছে পদ্মা সেতুর নির্মাণস্থল এলাকায় গেলেই। কয়েকজন পরোক্ষদর্শী ঘটনাটি নিশ্চিত করেছেন।

সেতু বা ব্রিজের মূল কাজ নদীর দুপাশের রাস্তায় সংযোগ স্থাপন। কিন্তু মাথা ব্যথার চিকিৎসায় ব্রিজ? কীভাবে? এ বিষয়ে একজনের সাথে কথা বলতে গেলে তিনি উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বলেন ‘মাথাব্যথা ছিল আমার ম্যালাদিন ধরেই। অনেক ঝাড়ফুঁক করেও কিছু হয় নাই। সেইদিন ফেসবুকে দেখলাম দলে দলে নাকি পদ্মা সেতুতে মানুষ গিয়ে মাথা ব্যথা দূর করে আসতেছে। আমিও গেলাম! বিশ্বাস করবেন না রাসেল ভাই, আমার মাথাটা নিয়ে নিল। আর সাথে সাথে ব্যথাটাও চলে গেল!’ এই কথার সমর্থনে মন্তব্য করেছেন আরও অনেকে। 

মাথা ব্যথার এর চেয়ে ভালো চিকিৎসা আর হয় না, এমনটা জানিয়ে এই চিকিৎসা নিয়ে আসা আরও একজন জানান, 'ইটস এ মিরাকল। মাথাও নাই, ব্যথাও নাই। আমার ব্যথাভর্তি মাথার উপর দাঁড়িয়ে থাকবে একটি ব্রিজ, ভাবতেই ভালো লাগছে।' 

তবে একেবারে আলাদা অভিজ্ঞতা জানা গেছে এক দর্শনার্থীর কাছ থেকে। সূদুর মিরপুর থেকে ঘুরতে আসা অন্য এক ব্যক্তি বলেন, ‘মিরপুর দশ নাম্বার থেকে বাসে উঠছি, এই গরমে ঢাকার জাম ঠেইলা আসতে আসতে সারাদিন লাগল। মনমতো ইলিশ খুঁজতে গিয়ে হয়রান হয়ে পড়লাম! তারপর ইলিশ ভাজা খাইতে গিয়ে দেখি লবণ বেশি। মাথাটা একদম খারাপ হয়ে গেছিল। তখনই শুনি পদ্মা সেতুতে নাকি মাথা দেওয়া যায়। তাই দিয়ে দিলাম… মাথা নাই, তো ব্যাথাও নাই!’

তবে পদ্মা সেতু নির্মাণে নাকি মানুষের মাথা কেটে নেয়া হচ্ছে' এ ধরনের গুজবে যারা বেশি মাথা ঘামান, তাদের মাথা ঘামার সমস্যা এই পদ্ধতিতে দূর হবে না বলে জানা গেছে।

১৮৩ পঠিত ... ১৪:০৮, জুলাই ১২, ২০১৯

Top