ঢাকার রাস্তায় বিশ্বকাপ ক্রিকেটের চূড়ান্ত প্রস্তুতি নিচ্ছেন ঢাকার বাইকাররা

১১৩ পঠিত ... ২১:১১, মে ২৯, ২০১৯

ট্রাফিক জ্যামে পৃথিবীর শীর্ষ নগরী ঢাকায় অ্যাপভিত্তিক রাইড শেয়ারিং সার্ভিস শুরু হবার পর থেকে বেশ জনপ্রিয়। পাঠাও, উবার, সহজ ইত্যাদি রাইড শেয়ারিং সার্ভিস প্রায়শই আলোচনায় আসে যাত্রীদেরকে পরতে দেওয়া হেলমেটের কারণে। কখনো কনস্ট্রাকশন সাইটের হেলমেট, কখনো সাইকেলের হেলমেট আবার কখনো হেলমেটের মতো দেখতে হালকা-পাতলা মস্তক আবৃতকারী বস্তু পরতে দেখা গেছে এসব সার্ভিসের যাত্রীদের। এবার হেলমেটের এই বৈচিত্রে যোগ হয়েছে ক্রিকেট খেলোয়াড়দের হেলমেটও।

গত কিছুদিন ধরে ফেসবুকে একটি মোটরসাইকেল ও দুই আরোহীর ছবি ঘুরে বেড়াতে দেখা গেছে। ছবি দেখে ধারণা করে নেওয়া যায় যে, পিছনের যাত্রী একটি রাইড শেয়ারিং অ্যাপের মাধ্যমেই বাইকটিতে চড়েছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবিটি যথেষ্ট সাড়া ফেলায় eআরকি জানতে চেয়েছিল আসল ঘটনা। eআরকির তুখোড় কর্মীরা খুঁজে বের করেন সেই রাইডারকে। বাইকে ক্রিকেটীয় হেলমেট রাখার কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘ক্রিকেট বিশ্বকাপ চলে আসতেছে, তাই বিশ্বকাপের প্রস্তুতি নিচ্ছি আরকি। ফুটবল বিশ্বকাপ হইলে তাও আকাশে বাতাসে কতো পতাকা উড়ে। ক্রিকেট বিশ্বকাপ যে চলে আসল, সেইটা বুঝারই কোন সুযোগ নাই। তাই আমি ঢাকার রাস্তায় ক্রিকেট বিশ্বকাপের আমেজ সৃষ্টি করতে চাই।’

তিনি জানান, তার দেখাদেখি আরও অনেক রাইডার রাজধানীর বুকে ক্রিকেট বিশ্বকাপের আমেজ আনতে ব্যাটিং হেলমেট নিয়ে ঘুরছেন। এই হেলমেট নিজে না পরে যাত্রীদের কেন পরতে দিচ্ছেন, এমন প্রশ্ন করলে তিনি ‘ভাই একটা রাইডের কল আসছে!’ বলে দ্রুতবেগে স্থানত্যাগ করেন।

বিজয় সরণির জ্যামে আমাদের সাথে এমন আরেক রাইডারের দেখা হয়। পিছনের যাত্রী তখন ব্যাটিং হেলমেট পরে বসেছিলেন। তার কাছে জানতে চাই এই হেলমেট পরার অনুভূতি। পাঠাও-উবারের নিয়মিত এই যাত্রী বলেন, ‘অনেক রকম হেলমেটই তো পাই। কয়েকবার আমার মাথা থেকে হেলমেট উড়ে গেছে। তারপর থেকে বাইকে উঠলে হেলমেট ধরে রাখতে হয়। এই হেলমেট উড়ে যাওয়ার সুযোগ নাই। থুতনিতে হইলেও আটকে থাকবে। সিভিল ইঞ্জিনিয়ারদের হেলমেটের চাইতে এইটা ভালো।’ যাত্রীর কথার সাথে তাল মেলান রাইডারও। তিনি বলেন, ‘এখন রাস্তাঘাটে ছেলেপেলেরা অনেক ক্রিকেট খেলে। কখন কোন বল উড়ে এসে আঘাত করে! তাই যাত্রীর সুরক্ষার কথা ভেবেই এই হেলমেট। আবার বিশ্বকাপও চলে আসছে। প্রস্তুতির ব্যাপার আছে না একটা!’

তার কাছে আমরা জানতে চাই, বিশ্বকাপ উদযাপনে নাহয় ক্রিকেটের হেলমেট, কিন্তু সিভিল ইঞ্জিনিয়ারদের হেলমেট কেন ব্যবহার করতেন? এই প্রশ্ন শুনে তিনিও চলে চলে যাওয়ার চেষ্টা করলে, বিজয় সরণির সিগনাল তাকে আটক করে রাখে। নিরুপায় রাইডার তখন বলেন, ‘চারদিকে কনস্ট্রাকশন চলতেছে। মেট্রোরেল, ফ্লাইওভার, এলিভেটেড এক্সপ্রেস হাইওয়ে কতো কী! কখন কোন কনস্ট্রাকশন সাইট থেকে ইট-পাথর মাথার উপর পড়ে তার ঠিক নাই। যাত্রীর সুরক্ষাই আমার মূলনীতি।’ তাহলে নিজের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে কেন তিনি সেসব হেলমেট পরছেন না, এমন প্রশ্ন করলে তিনিও কোন সদুত্তর দেননি।

১১৩ পঠিত ... ২১:১১, মে ২৯, ২০১৯

Top