গবেষণায় দেখা গেছে, গ্রীষ্মকালে ছাতার চাইতে টুকরি বা ঝাঁকা ব্যবহার করা বেশি উপকারী

৯৭ পঠিত ... ২১:৩২, মে ১২, ২০১৯

ছবি: লতিফ হোসেন

এই ছবিটা ভালোভাবে খেয়াল করুন। একজন ব্যক্তি প্রচন্ড রোদ থেকে বাঁচতে ছাতা মাথায় দিয়ে দাঁড়িয়ে আছে, আর অন্য আরেকজনের মাথায় ঝাঁকা। ছাতা ব্যবহারকারীর পেটে বড় একটা ভুড়ি থাকলেও ঝাঁকা মাথায় দেয়া ব্যক্তির সুঠাম দেহ। নেই একফোটা মেদ।

লতিফ হোসেনের তোলা এই ছবিটার ওপর ভিত্তি করে এক গবেষণায় দেখা গেছে, গ্রীষ্মকালে ছাতা মাথায় দেয়ার চাইতে ঝাঁকা মাথায় দেয়া বেশি স্বাস্থ্যকর৷ ছাতার বদলে মাথায় ঝাঁকা নিয়ে ঘুরলেই এই গরমেও আপনার দেহ থাকবে স্বাস্থ্য সবল। মেদভূড়ি থেকে বেচে নিজেকে রাখতে পারবেন ফিট।

তবে যেহেতু আইনস্টাইন ইন্টারনেটে যা দেখা যায় তা বিশ্বাস করতে মানা করেছেন, আমরা একজন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞের কাছে সত্যতা জানতে চাইলে তিনি বলেন, 'ঘটনা সত্য। ছাতায় আছে ক্ষতিকর কেমিক্যাল যা দেহে মেদ বাড়াতে সাহায্য করে। তাই এই গরমে ছাতা খাওয়া ঠিক না।'

এ সময় তাকে ছাতা খাওয়া না, মাথায় দেয়ার বিষয়ে জানতে চাওয়া হচ্ছে বলা হলে তিনি জানান, 'ছাতা খাওয়ার জিনিস না৷ এটা মাথায় দিতে হয়। আমার একটা ছাতা গত বর্ষায় হারায় গেছে। কোন হারামজা* যেন অফিস থেকে চুরি করে ভাগছে।'

কিন্তু মূল পয়েন্টে কিছু না বলায় আমরা হতাশ হয়ে উক্ত স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞের চেম্বার থেকে চলে আসি। মূল ঘটনা জানার জন্য আমরা রাস্তায় নেমে ছাতা মাথায় দেয়া এক ব্যক্তির নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, 'আমি গত ত্রিশ বছর ধরে ছাতা মাথায় ঘুরতেছি কিন্তু কখনো তো একশ কেজির বেশি ওজন হয়নি৷ সুতরাং এসব গুজব।'

আরেকজন ঝাঁকা মাথায় দেয়া ব্যক্তি আমাদের জানায়, 'ফেসবুকে গবেষণার কথা জানতে পেরে প্রতিদিন ঝাঁকা মাথায় নিয়ে অফিসে যাচ্ছি৷ গরম থেকে যেভাবে রক্ষা পাচ্ছি সেভাবে বডিও ভালো থাকছে। আমি আমার বাচ্চাদেরও ঝাকা মাথায় স্কুলে পাঠাই। জনতার উদ্দেশে আমি বলতে চাই সুঠাম দেহ চাইলে ছাতা নয়, এই রোদে মাথায় নিন ঝাঁকা।'

৯৭ পঠিত ... ২১:৩২, মে ১২, ২০১৯

Top