মিরপুরগামী যাত্রীদের নিজেদের ব্যাগে দুই দিনের ইফতার মজুদ রাখার নির্দেশ

২৪২ পঠিত ... ১৭:৪৪, মে ০৯, ২০১৯

ঢাকার যেকোনো প্রান্ত থেকে মিরপুর যাওয়ার জন্য বা মিরপুর থেকে অন্য কোথায় রওয়ানা হওয়ার জন্য গাড়িতে উঠলে সতর্কতা হিসাবে অন্তত দুইদিনের ইফতারি মজুদ রেখে রাস্তায় নামার নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। নজিরবিহীন জ্যামের কারণেই এই নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে জানা যায়। তবে কে বা কারা এমন নির্দেশ দিয়েছে তাদের খুজে পাওয়া যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে নির্দেশদাতা মিরপুরের জ্যামের মধ্যে বিলুপ্ত হয়ে গেছে৷

তবে নির্দেশদাতাকে খুজে না পেলেও ঠিকই নির্দেশ মেনে চলছেন মিরপুরবাসী। দুই দিন থেকে শুরু করে অনেকেই এক সপ্তাহের সেহেরি ও ইফতার মজুদ করেই গাড়িতে উঠছেন৷ এ বিষয়ে যাত্রাবাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয়া এক মিরপুরবাসী eআরকিকে জানায়, 'অন্য সময়ের চাইতে রোজার মাসে মিরপুরে জ্যাম সামান্য বেশি হয়। দুইদিনের জায়গায় পৌঁছতে তিন-চারদিন লাগে। যাত্রাবাড়ী ভাইয়ের বাসায় যাচ্ছি ঈদ করতে। কতদিন জ্যামে থাকা লাগবে জানি না বলে হাতে একটু সময় নিয়ে বের হলাম।'

এ সময় এই ব্যক্তির সাথে কয়েক বস্তা ইফতার ও ইফতার তৈরির সরঞ্জাম দেখা যায়।

এদিকে রমজান মাসে মিরপুরের দূর্গম পথ পাড়ি দিতে রোজাদারদের যাতে কষ্ট কম হয় সেজন্য নানা ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে, 'আমরা মিরপুরের জ্যামে বাস করি' নামের একটা সামাজিক সংগঠন। এই সংগঠনের উদ্যোগে রোজার মাসে মিরপুরের জ্যামে আটকে যাওয়া প্রতিটা মানুষের জ্যাম ছাড়ার আগ পর্যন্ত অনির্দিষ্টকালের জন্য সব ধরনের ভরণপোষণের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

এছাড়াও মিরপুরের জ্যামে আটকে পড়া জনতার জন্য মধ্যপ্রাচ্য থেকে ত্রাণ হিসাবে ইফতার আসছে বলেও অন্য একটি সূত্রে জানা যায়।

২৪২ পঠিত ... ১৭:৪৪, মে ০৯, ২০১৯

Top