বাংলাদেশের মনিকা চাকমার দুর্দান্ত গোল চলে গেল ফিফার 'ফ্যানস ফেভারিট' লিস্টে

১৪৩ পঠিত ... ২০:৩৫, মে ০৪, ২০১৯

ম্যাচের প্রথমার্ধ্বের অতিরিক্ত সময়ের খেলা চলছে। ম্যাচ তখনো গোলশুন্য। ডিবক্সের বাইরে ডান প্রান্তে ডিফেন্ডারদের জটলা থেকে উড়ন্ত একটি বলকে ক্ষিপ্র গতিতে হেড দিয়ে এক ডিফেন্ডারের মাথার উপর দিয়ে পাঠিয়ে দিলেন। বলটি মাটিতে পড়ে একবার বাউন্স খেতেই একই গতিতে দৌড়ে এসে বক্সের বাইরে থেকেই বাঁ পায়ে সজোরে এক কিক। সামনে তখনো প্রতিপক্ষের চার ডিফেন্ডার, নিজ দলের দুজন খেলোয়াড়। সবার মাথার উপর দিয়ে গিয়ে গোলকিপারকে একেবারে স্তব্ধ করে বলটি পোস্টের টপ রাইট কর্নার দিয়ে চলে গেল জালের ভেতর।

কী ভাবছেন, মেসি রোনালদো বা মোহাম্মদ সালাহর কোন গোল নিয়ে কথা হচ্ছে? না, কোন ইউরোপিয়ান তারকা ফুটবলারের গোল নিয়ে কথা হচ্ছে না। পুসকাস অ্যাওয়ার্ডের কোন দৃষ্টিনন্দন গোলের বর্ণনাও নয় এটি। গোলটি হয়েছে ঢাকার বঙ্গবন্ধু ফুটবল স্টেডিয়ামে বঙ্গমাতা অনুর্ধ্ব-১৯ গোল্ডকাপের সেমিফাইনালে বাংলাদেশ বনাম মঙ্গোলিয়া ম্যাচে। গোলটি করেছে বাংলাদেশের মেয়ে মনিকা চাকমা। আর এই দুর্দান্ত গোলটি চলে গেছে ফিফার ‘ফ্যানস ফেভারিট’-এ।

 

বাংলাদেশের ফুটবলের অবস্থা যেমনই হোক, ক্রিকেটের পাশাপাশি ফুটবলেও মেয়েরা প্রতিনিয়ত ভালো খেলে যাচ্ছে। তবে বয়সভিত্তিক টুর্নামেন্টে এমন একটি গোল নিশ্চয়ই কেউ ভাবেননি। মেয়েদের ফুটবলে তো বটেই, বাংলাদেশের ফুটবলেও সচরাচর এমন কোন গোলের কথা মনে করতে স্মৃতি হাতড়াতে হবে বেশ অনেকক্ষণ।

২৯ এপ্রিলের ম্যাচটিতে কৃষ্ণা আর স্বপ্নার মতো গুরুত্বপূর্ণ ফুটবলার না থাকায় কিছুটা চিন্তিত ছিল বাংলাদেশ দল। তার উপর মঙ্গোলিয়ানদের শারীরিক সক্ষমতাও সন্দেহাতীতভাবে বেশি। তবে কিছুই থামিয়ে রাখতে পারেনি বাংলার মেয়েদের। ম্যাচটি ৩-০ গোলে জিতে ফাইনাল নিশ্চিত করে বাংলাদেশ।

মনিকার গোলটির ভিডিও নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শুরু হয়ে যায় উল্লাস। যারাই দেখেছেন সবাই এক বাক্যে স্বীকার করেছেন, এটি নিঃসন্দেহে বিশ্বমানের একটি গোল। ফেসবুকে অনেকেই এটিকে একেবারে পুসকাস অ্যাওয়ার্ডে পাঠিয়ে দেওয়ার কথা বলেছেন। তবে পুসকাস অ্যাওয়ার্ডের জন্য না গেলেও গোলটি জায়গা করে নিয়েছে ‘ফ্যানস ফেভারিট’-এ। প্রতি সপ্তাহে বিশ্বজুড়ে ফুটবল নিয়ে আলোচিত বিভিন্ন ঘটনা #WeLiveFootball হ্যাশট্যাগ দিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে ভক্তরা। আর সেখান থেকেই সর্বাধিক আলোচিত সেরা ৫টি ঘটনা নিয়ে ফিফা প্রকাশ করে ‘ফ্যানস ফেভারিট’। মৌসুমের শেষদিকে দুনিয়াব্যাপী ফুটবলের এই রমরমা সময়ে চলতি সপ্তাহের ফ্যানস ফেভারিটে জায়গা করে নিয়েছেন মনিকা চাকমা।

ওই ম্যাচে ম্যান অফ দ্য ম্যাচ হওয়ার পর পুরস্কারের অর্থ সতীর্থদের সাথে ভাগাভাগি করতে চান, এমনটা জানিয়ে তিনি বলেন, 'অন্যরা আমাকে সহযোগিতা করেছেন বলেই আমি গোল পেয়েছি এবং ম্যাচ সেরা হয়েছি। তাই আমার ইচ্ছে, পুরস্কারের পাঁচশত ডলার দিয়ে সতীর্থ সবাইকে নিয়ে ভাগ করে খাবো।'

অনেকের মুখেই এখন ‘ম্যাজিকাল মনিকা’ নামে পরিচিতি পাওয়া মনিকা চাকমা নিশ্চয়ই বুঝিয়ে দিয়েছেন, বাংলার মেয়েরা এখন ফুটবল খেলাটাকে বেশ সিরিয়াসলিই নিচ্ছেন।

১৪৩ পঠিত ... ২০:৩৫, মে ০৪, ২০১৯

Top