অবশেষে উন্মোচিত হলো বিয়েবাড়ির কাচ্চির অনন্য স্বাদের মূল রহস্য

১৩৬৯ পঠিত ... ১৮:৪৩, মে ০৪, ২০১৯

সম্প্রতি মুখবইয়ের পাতায় একটি বিয়েবাড়ির রসুইঘরের ছবি বেশ ঘুরছে ফিরছে। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, রাধুনীদের একজন বেশ আরামসে লুঙ্গিতে হাত ডুবিয়ে (কিংবা চুবিয়ে) নিজের পশ্চাৎদেশ চুলকাচ্ছেন।

ছবি: আকাশ সেন

এরই মাধ্যমে উন্মোচিত হয়েছে বিয়েবাড়ির কাচ্চি এত 'ট্যাশ' হওয়ার রহস্য! জীবনে সহস্রাধিক বিয়ে খাওয়া এক প্রফেশনাল ওয়েডিং ক্র্যাশার বলেন, 'শুধু কাচ্চির লোভেই হাজারখানেক বিয়ে খেয়েছি। বিয়েবাড়ির কাচ্চির যে স্বাদ, তা দোকানের কাচ্চিতে কখনোই পাইনি। সবসময়ই মনে হতো, বাংলাদেশি বিয়েবাড়ির কাচ্চির নিশ্চয়ই কোনো সিক্রেট রেসিপি আছে, নাহলে কেন তা স্বাদে গন্ধে পৃথিবীর সব কাচ্চি থেকে আলাদা হবে। আজ প্রমাণ পেলাম।'

বাংলাদেশের বিখ্যাত সব বাবুর্চিরা ছবিটি দেখে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন! বিখ্যাত শেফ টমি মিয়ার একটি ফেক আইডি পোস্ট দিয়ে জানান, 'বিয়েবাড়ির কাচ্চির মতো র টেস্টের কাচ্চি রান্নার অনেক চেষ্টা করেছি, কিন্তু কখনোই পারিনি। এতদিনে এই ওয়াইল্ড স্বাদের রহস্য জানলাম। এখন থেকে ইয়ে না চুলকিয়ে কখনোই কাচ্চি রাঁধবো না।' হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালের শেফ লিখেছেন, 'খুব ট্যাশ খাবার রান্না করতে চান? তাহলে পাগলা চুলকে নে!' 

শুধু বাংলাদেশি রাধুনীরাই নয়, এই ছবি দেখে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন বিশ্বের নানান প্রান্তের বিখ্যাত সব শেফ। মাস্টারশেফ অস্ট্রেলিয়ার একজন বিজয়ী জানিয়েছেন, 'বাংলাদেশি বিয়ের রান্নার প্রশংসা আমি অনেক শুনেছি। ওখানে নাকি বিয়ের খাবার এতই ভালো যে যারা দাওয়াত পায় না তারাও বিয়ে খেতে ঢুকে যায়। কিন্তু ওরা কী এক্সক্লুসিভ ইনগ্রেডিয়েন্ট ব্যবহার করে তা এতদিন ধরতেই পারিনি। ফাইনালি আই গট ইট... ইচিং ইন দ্য এস, দ্যাটস দ্য সিক্রেট! এখন থেকে যখনই রান্না করবো, একবার অবশ্যই চুলকে নেবো।'

আগ্রহ প্রকাশ করেছেন বিখ্যাত ফুড রিভিউয়াররাও। ফুড রেঞ্জারখ্যাত ট্রেভর জেমস জানিয়েছেন, 'বাংলাদেশে এসে একটা বিয়েতে কাচ্চি খেয়েছিলাম। খুব ট্যাশ! ছবিটা দেখা ট্যাশের কারণ বুঝলাম। দিস অ্যাস ইচিং রেসিপি ইজ ফ্যান্টাস্টিক।'

তবে ছবিটি দেখে আতঙ্কিত হওয়া মানুষের সংখ্যাও কিছু কম নয়। যারা সচরাচর বিয়ের দাওয়াত না পাওয়ায় হতাশাগ্রস্থ থাকেন, তাদের অনেকেরই হতাশা কেটে গেছে। ভবিষ্যতে বিয়েতে দাওয়াত পেলেও খাবেন না বলে জানিয়েছেন অনেকে। অনেকের মতামত, এইজন্যই বাঙালির পেটে এত কৃমি, এত চুলকানি!

১৩৬৯ পঠিত ... ১৮:৪৩, মে ০৪, ২০১৯

Top