এই গরমে লুঙ্গি পরে অফিস করার দাবি জানালেন সর্বস্তরের চাকরিজীবিরা

৭২১ পঠিত ... ১৭:২১, এপ্রিল ২৯, ২০১৯

বৈশাখকে মহাসমারোহে বরণ করে যেন কিছুটা বিপদেই পড়ে গেছে দেশবাসী। তীব্র গরমের দাবদাহে দেশের সকল প্রান্তেই মানুষ হাঁসফাঁস করছেন। অন্য সবার মতো এই গ্রীষ্মের প্রচন্ড তাপ সইতে হচ্ছে চাকরিজীবীদেরও। ‘মরার উপর খাড়ার ঘা’র মতো তাদের এই গরমেও তাদের গায়ে চাপাতে হচ্ছে ফরমাল পোশাক। মাঝে মধ্যে বয়ে যাওয়া মৃদু শীতল বাতাসের পরশ এসব ফরমাল প্যান্ট শার্টের ফাঁক গলে স্পর্শ করতে পারে না।

এই গরমে তাই দেশের বিভিন্ন স্থানের চাকরিজীবীদের রাস্তায় দেখা গেছে অভিনব এক দাবি নিয়ে। এই গরমে লুঙ্গি পরে অফিস করার দাবি জানিয়ে একদল সরকারি ও বেসরকারি চাকরিজীবীকে করতে দেখা গেছে লুঙ্গিবন্ধন। পশ্চিমা উপনিবেশিক দাসত্বের মনোভাব থেকে বের হয়ে না আসতে পেরে তাই বাংলাদেশিদের অফিস করতে হয় প্যান্ট, শার্ট, কোর্ট, বা টাইয়ের মত গরম কাপড় পরে। কিন্তু এই গরমে দেহ খুঁজে দেশীয় ফ্যাশনের শীতল পোশাক লুঙ্গি। দেশের অফিসে বসে দেশীয় কাপড় পরার অধিকার আদায় করতেই এই চাকরিজীবীদের আন্দোলন।

রাজধানী ঢাকার মতিঝিল, কারওয়ানবাজার, গুলশান-বনানী ইত্যাদি অফিসবহুল এলাকায় দেখা যায় হাতে হাত, লুঙ্গিতে লুঙ্গি বেঁধে দাবি আদায়ের দাবিতে নেমে পরেছেন অনেক চাকরিজীবী। । অনেকে তাদের লুঙ্গি সামান্য উচু করে বাতাস চলাচল সহজ ও দ্রুততর করার চেষ্টায় নিমগ্ন ছিলেন৷ এরকমই একজন চাকুরিজীবী eআরকিকে জানায়, 'লুঙ্গি আমাদের দেশের গর্ব, আমাদের ইতিহাসের অংশ। এই গরমে আমরা লুঙ্গি পরে অফিস করার অধিকার চাই৷ না হলে আজ শুধু শান্তিপূর্ণ লুঙ্গিবন্ধন করেছি, কিন্তু কাল লুঙ্গিমিছিল অথবা আমরণ লুঙ্গি অনশন সহ আরো কঠোর কর্মসূচিতে যাবো।'

আরেকজন চাকুরিজীবী বলেন, 'আমরা তো শুধু শুধু লুঙ্গি পরে অফিস করতে চাচ্ছি না। দেখেন কি গরম পড়তেছে। তার উপরে অফিসে এসিও নাই। হয় আমাদের এসি দাও, নাহয় আমরা লুঙ্গি পরে অফিসে আসব। কেউ আমাদের ঠেকাতে পারবে না।'

এসময় লুঙ্গিবন্ধন থেকে, 'কর্মজীবীর সঙ্গী, এই গরমে লুঙ্গি', 'গরম থেকে মুক্তি চাই, সব অফিসে লুঙ্গি চাই' ইত্যাদি জ্বালাময়ী স্লোগান মুহুর্মুহু ভেসে আসতে থাকে।

এদিকে পিছিয়ে নেই কর্মজীবী নারীরাও৷ তারাও চাচ্ছে লুঙ্গি পরে অফিস করার অধিকার। নুসরাত মনীষা নামের এক কর্মজীবী নারী আমাদেরকে জানায়, 'শাড়ি পইরা যে গরম লাগে, তার চাইতে লুঙ্গির ওপরে শার্ট পরা ভালো। জিনিস তো একই।' তবে কোন কোন কর্মজীবী নারী জানিয়েছেন স্কার্টকেই তারা এই গরমে সঙ্গী করেছেন।

এ বিষয়ে মতামত জানতে চাইলে জাতীয় পোষাক সমিতির সাধারণ সম্পাদক eআরকিকে বলেন, 'ভাইরেভাই, আমি নিজে অফিসে আমার রুমে ঢুকে দরজা বন্ধ করে প্যান্ট খুলে লুঙ্গি পরে বসে থাকি, আমি আর কি বলব। যে গরম পড়ছে লুঙ্গিই একমাত্র ভরসা। তবে খেয়াল রাখতে হবে অন্যের লুঙ্গি ধরে কেউ যেন টানাটানি না করে, এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। সাথে সঠিকভাবে লুঙ্গির গিট দেয়া জানতে হবে যাতে অফিসে গুরুত্বপূর্ণ মিটিং চলাকালে কোনোভাবে লুঙ্গি খুলে না যায়!'

৭২১ পঠিত ... ১৭:২১, এপ্রিল ২৯, ২০১৯

Top