'এক জয়া আহসানকে নিয়েই পারি না, এখন আবার এসেছে পূর্ণিমা'

২১৪০ পঠিত ... ১৮:৫৪, এপ্রিল ১৬, ২০১৯

বয়স বৃদ্ধির সাথে সৌন্দর্য কমে যাওয়ার সকল সূত্রকে অস্বীকার করে গত বেশ কয়েক বছর ধরেই আলোচনায় আছেন অভিনেত্রী ও মডেল জয়া আহসান। কিন্তু সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ার আলোচনায় বেশ বারবার ঘুরে আসছে এক সময়ের সাড়া জাগানো চিত্রনায়িকা পূর্ণিমার নামও। তবে কি এখন জয়ার প্রতিদ্বন্দ্বীই হয়ে উঠলেন পূর্ণিমা?

একটা সময়ের পর বয়সের সাথে সৌন্দর্য ব্যস্তানুপাতে কমতে থাকে, এমনটাই বিজ্ঞানীরা বলে আসছেন প্রাচীনকাল থেকে। কিন্তু এই ধারণার ভিত্তিমূলে কুঠারাঘাত করেছেন জয়া আহসান। বয়সের সাথে সৌন্দর্যের সম্পর্ককে সমানুপাতে নিয়ে এসে একটি ধরাছোঁয়ার বাইরে ধ্রুবক স্থাপন করতে যেন তিনি বদ্ধপরিকর। জয়ার কাছে বয়স যেন কেবলই একটি সাধারণ সংখ্যা। তাই খুব স্বাভাবিকভাবেই জয়াকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় সব বয়সের মানুষের মাঝে চলে তুমুল মাতামাতি। আর গত কিছুদিন ধরে একই কারণে বারবার আলোচনায় আসছেন প্রায় দুই যুগ আগে সিনেমায় ক্যারিয়ার শুরু করা অভিনেত্রী পূর্ণিমা।

এ নিয়ে সাধারণ জনগণের মাঝে দেখা দিয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। কী সেই প্রতিক্রিয়া তা জানতে মাঠে নেমে পড়েছিল eআরকি। সোশ্যাল মিডিয়ায় নতুন রূপে পূর্ণিমার আগমন নিয়ে জানতে চাইলে এক তরুণ বলেন ‘এক জয়াকে নিয়েই পারি না, তার উপর এখন আসছে পূর্ণিমা! এমনিতেই জয়ার ছবিতে লাভ রিএক্ট দিতে দিতে আমি ক্লান্ত। এখন পূর্ণিমার ছবিতেও লাভ রিএক্ট দিতে হচ্ছে। আমি পড়ালেখারই আর সময় পাই না।’ অন্যদিকে এক তরুণী জানান, ‘আমি নিষ্ঠার সাথে জয়া আপ্পির ছবিতে ‘সো সুইট’, ‘এত্ত গর্জিয়াস লাগছে’ এইসব কমেন্ট করে আসছি। এখন পূর্ণিমা আপ্পির ছবিতেও এসব কমেন্ট করতে হবে! কতো সময় লাগে, বলেন!’

ছবি: পূর্ণিমার ফেসবুক পেজ থেকে

তবে একইসাথে দুইজনকেই লাভ রিএক্ট দিয়ে যাওয়া মানুষদের নিয়ে ভেসে আসছে নানান মন্তব্য। জয়ার টপ ফ্যানদের একটা অংশ পূর্ণিমার ছবিতেও গোপনে লাভ রিএক্ট দিচ্ছে, এমন অভিযোগ এসেছে ‘নিখিল বাংলা জয়া ফ্যান ক্লাব’-এর পক্ষ থেকে। সংগঠনটির মুখপাত্র এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, ‘আমরা খবর পেয়েছি অনেকেই জয়ার পাশাপাশি পূর্ণিমার ছবিতেও রিএক্ট করে যাচ্ছে। কেউ কেউ শেয়ারও দিচ্ছে। এই বিপথগামী ভক্তরা সংগঠনের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করছে।’

এদিকে জানা গেছে, নবগঠিত ‘পূর্ণিমা ফ্যান ক্লাব’-এর সাংগঠনিক কমিটিতে একাধিক সাবেক জয়া ফ্যান রয়েছেন। এছাড়াও একইসাথে দুইজনেরই টপ ফ্যান হয়ে যারা ফেসবুকে এক্সট্রা ফুটেজ নিচ্ছেন তাদের বিরুদ্ধেও দুটো ফ্যান ক্লাব থেকেই বিস্তর সমালোচনা আসছে। এমন সমালোচনাকে ‘হীন’ বলে আখ্যা দিয়ে যৌথভাবে দুই পেজেই টপ ফ্যান থাকা একজন বলেন, ‘আমার লাভ আমি দিব, যাকে খুশি তাকে দিব। আমি ক্লান্তিহীন লাভ রিএক্ট দিয়ে যেতে পারি। কমেন্ট করতে পারি। যারা আমাদের সমালোচনা করছেন, তারা হিংসা থেকেই এসব করছেন। আমাদের সকলের এমন নীচতা পরিহার করা উচিত।’

ছবি: পূর্ণিমার ফেসবুক পেজ থেকে

২১৪০ পঠিত ... ১৮:৫৪, এপ্রিল ১৬, ২০১৯

Top