ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ে এক সপ্তাহ আগেই ফাঁস হয়ে গেলো পহেলা বৈশাখের স্পয়লার

৪৯৯১ পঠিত ... ২১:৫৭, এপ্রিল ০৭, ২০১৯

গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডারের ১৪ এপ্রিল একইসাথে সেভেন কিংডমে নেমে আসতে যাচ্ছে বহুল প্রতীক্ষিত উইন্টার এবং বাংলাদেশে পালিত হতে যাচ্ছে বাংলা নববর্ষ। তবে কোথাও কোন গেম অফ থ্রোনসের স্পয়লার ফাঁস না হলেও নববর্ষের স্পয়লার ঠিকই ফাঁস হয়ে গেছে রাজধানীতে। ৭ এপ্রিল (রবিবার) রাজধানী ঢাকার স্বনামধন্য বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ে নববর্ষ উদযাপনের মাধ্যমে পহেলা বৈশাখের সাত দিন আগেই ফাঁস হয়ে গেল বৈশাখের স্পয়লার।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নববর্ষের সাত দিন আগেই নববর্ষ উদযাপনের ছবি দেখতে পেয়ে আর সকলের মত কৌতূহলী হয়ে পড়ে eআরকির উৎসব উদযাপন সেলও। সরেজমিনে উৎসব দেখতে (নাকি পান্তা-ইলিশের খোঁজে) ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় পানে ছুটে যায় eআরকির প্রতিনিধি দল। সেখানে গিয়ে উৎসবমুখর অথচ ঘরোয়া পরিবেশে নববর্ষ উদযাপন করতে দেখা যায় শিক্ষার্থীদের। সেখানে গোঁফওয়ালা কিছু শিক্ষার্থীর অনেককে গোঁফে তেল দিতেও দেখা যায়।

পহেলা বৈশাখের সাত দিন আগেই নববর্ষ উদযাপন কেন করছেন, এ নিয়ে জানতে চাইলে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘গত কিছুদিন ধরে কালবৈশাখী ঝড় হচ্ছে। তো এই কালবৈশাখী কখন হয়? বৈশাখ মাসেই না! প্রকৃতি যদি আমাদের বৈশাখ মাসের স্পয়লার চৈত্র মাসে দিতে পারে, আমরা কেন পারব না?’ অন্য এক শিক্ষার্থী জানিয়েছেন ভিন্ন কারণ, ‘পহেলা বৈশাখ হবে রবিবার। তার আগের দুইদিন ছুটি। তো এই তিনদিনে ট্যুরে যাব ঢাকার বাইরে। কিন্তু তাই বলে নববর্ষের জন্য কেনা শাড়িটা পরব না নাকি?’ শিক্ষার্থীদের একটা বড় অংশ তিন দিনের ছুটিতে ঢাকার বাইরে ঘুরতে যাচ্ছেন বলেই এমন আগেভাগে উদযাপন, এমনটাই জানিয়েছেন আরও কিছু শিক্ষার্থী।

আবার কেউ কেউ বলছেন, আরাম করে স্পয়লার মুক্ত গেম অফ থ্রোনস দেখার জন্যই আগেভাগে তারিখ এগিয়ে নিয়ে আসা। মুঘল বাদশাহ আকবরের শাসনামলের পর কি আবার বড় ধরনের পরিবর্তন আসতে যাচ্ছে বাংলা ক্যালেন্ডারে? এমন প্রশ্নের জবাবে অন্য এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘ক্যালেন্ডার বানানোই হইছে বদলানোর জন্য। সাত দিনে কী আসে যায়! নববর্ষ উদযাপনই বড় কথা!’

অন্যদিকে অনেকেই নিশ্চিত হতে পারছেন না, বৈশাখ মাসকে ৩৭ দিন এবং চৈত্র মাসকে ২৪ দিন করা হয়েছে কি না।

 eআরকিক: ফাইয়াজ কবির (Rantages Goatposting থেকে)

তবে একটি সূত্র থেকে জানা গেছে, পহেলা বৈশাখের সময় পরীক্ষা থাকার কারণেই আগেভাগে এই বৈশাখ উদযাপন। এ ব্যাপারে এআইইউবির এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘পরীক্ষা থাকার কারণে আগেভাগে উৎসব উদযাপন করতে হলে আমাদের ইদ, পূজা, থার্টি ফার্স্ট এমনকি বার্থডেও আগে আগেই উদযাপন করে ফেলা ছাড়া গতি নাই।’

৪৯৯১ পঠিত ... ২১:৫৭, এপ্রিল ০৭, ২০১৯

Top