অ্যাঞ্জেলিনা জোলিকে সম্মানসূচক 'ডাক্তার' ডিগ্রী দিতে চায় বাংলাদেশের ডাক্তাররা

১৬১৬ পঠিত ... ১৯:৪৭, ফেব্রুয়ারি ০৭, ২০১৯

মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা শরণার্থীদের পরিদর্শন করতে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থার (ইউএনএইচসিআর) বিশেষ দূত হিসেবে গত ৪ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশে এসেছেন বিখ্যাত হলিউড অভিনেত্রী অ্যাঞ্জেলিনা জোলি। ৬ ফেব্রুয়ারি বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শনের পর দর্শণার্থীদের মন্তব্য খাতায় তিনি একটি নোটও লেখেন।

জোলির লেখা এই নোটের ছবিই এরপর থেকে ঘুরছে ফেসবুকময়। জোলি এখানে ঠিক কী লিখেছেন, বা আদৌ কিছু লিখেছেন কিনা, তা অনেকেই বুঝে উঠতে পারেননি। কেউ ভেবেছেন পুরোটাই অ্যাঞ্জেলিনা জোলির সিগনেচার, কারো মনে হয়েছে এটা ডাক্তারি ইসিজি সম্পর্কিত কিছু, কেউ আবার এটার অর্থ করেছেন জোলি নাকি নদীমার্তৃক বাংলাদেশ বোঝাতে একটি ঢেউয়ের ছবি এঁকে সাংকেতিক কিছু বুঝিয়েছেন। এই নোটের সুষ্ঠু 'ডিকোডিং' এর জন্য একদল এটাকে প্রেসক্রিপশন ধরে নিয়ে ফার্মেসির দোকানে চলে যান। পরে বাংলাদেশের 'ফার্মেসি দোকানদার এসোসিয়েশন' এবং 'ডক্টরস হ্যান্ডরাইটিং ডিকোডিং এজেন্সি'র যৌথ সহযোগিতায় এই নোটের পাঠোদ্ধার করা সম্ভব হয়। আবেগময় এই নোটটি লিখতে জোলি 'ডক্টর' ফন্ট ব্যবহার করেছেন বলে জানায় এই ফন্টের এক্সপার্ট একজন সিনিয়র ফার্মেসির দোকানদার।

জোলি লিখেছেন,
I am deeply moved to be in this very special home. I am humbled by their great sacrifice and inspired by their lives.

Sincerely
Angelina Jolie

জোলির এই আবেগময় বার্তার মূল বক্তব্য বুঝতে পেরে বাংলাদেশের ডাক্তাররা আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন। আবেগপ্রবণ এক ডাক্তার জানান, 'ডাক্তারি হাতের লেখা অর্জন করতে আমাদেরকে এত বছর মেডিকেলের দাঁতভাঙা পড়ালেখা করতে হয়। একের পর এক প্রেসক্রিপশন লিখতে লিখতে এরপর আমরা এত নিখুঁতভাবে ডাক্তারি ফন্টে লিখতে পারি। অথচ জোলি আপা কোনোরকম প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা ছাড়াই অর্জন করেছেন ডাক্তারি ফন্ট লেখার এত তুমুল দক্ষতা। উনি অসাধারণ এক অভিনেত্রী, দুস্থ মানুষের ক্ষত সারাতে এসেছিলেন বলেই হয়তো লেখার সময় মনে মনে ডাক্তারের চরিত্রে অভিনয় করছিলেন।'

অ্যাঞ্জেলিনা জোলিকে সম্মানসূচক 'ডাক্তার' ডিগ্রীও দেয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে বাংলাদেশের আবেগপ্রবণ ডাক্তারদের একাংশ। আমেরিকায় না ফিরে এই স্পেশাল হোম মানে বাংলাদেশে যদি তিনি থেকেও যান, ডাক্তার হিসেবে তাকে নিয়মিত প্র্যাকটিস করার প্রস্তাবও দিয়েছেন কয়েকজন। তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ফার্মেসির দোকানদার বলেন, 'জোলি আপা ডাক্তার হইলে উনার প্রেসক্রিপশন আমি নিজেই নিয়মিত পইড়া দিতে চাই। উনার লেখার পাঁচটা শব্দ অন্তত বুঝছি, আমাদের ডাক্তারদের লেখা কিছুই বুঝি না!'

১৬১৬ পঠিত ... ১৯:৪৭, ফেব্রুয়ারি ০৭, ২০১৯

Top