টিএসসির ১০ টাকায় চা, সিঙ্গাড়া, সমুচা ও চপকে স্বীকৃতি দিলো গিনিজ বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস

৫৮২৩ পঠিত ... ১৩:৩৫, জানুয়ারি ২৯, ২০১৯

গত ২৮ জানুয়ারি টিএসসিতে একটি নবীনবরণের অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান। বক্তব্যের একটি অংশে তিনি বলেন, 'ঢাবির শিক্ষক-ছাত্র মিলনায়তনে দশ টাকায় এক কাপ চা, একটি সিঙ্গারা, একটি সমুচা আর একটি চপ পাওয়া যায়, এবং এটি গিনেজ বুক অব ওয়ার্ল্ডে রেকর্ড হবার মতোন ব্যাপার।'

তিনি তার যুক্তিতে আরও শান দিয়ে বলেন, 'পৃথিবীর কোথাও তো দশ টাকায় এক কাপ গরম পানিও পাওয়া যায় না। সেখানে ঢাবিতে দশ টাকায় এত্তো জিনিস পাওয়া যাচ্ছে, সেটা তো গর্ব করার মতোন বিষয়'।

দশ টাকার চা, সমুচা সংক্রান্ত ঢাবির ভিসির বক্তব্য গতকাল সোশ্যাল মিডিয়াতে ছড়িয়ে পড়লে ব্যাপারটা আন্তর্জাতিক মহলের নজরে আসে৷ আর তাই মাত্র চব্বিশ ঘন্টার মধ্যে টিএসসির ১০ টাকার চা, সিঙ্গাড়া, সমুচা ও চপকে স্বীকৃতি দিলো গিনিজ বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস।

ছবি : সংগৃহীত

গিনেজ বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের বাংলাদেশ শাখা 'গিনিজ বুক' থেকে এক বিবৃতির মাধ্যমে এই স্বীকৃতি দেয়া হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, 'ঢাকা ভার্সিটির গর্ব, এই শতাব্দির অত্যশ্চার্য্য প্ল্যাটার, মাত্র দশ টাকায় চা, সিঙ্গারা, সমুচা, চপের এই রীতিকে আজ আমাদের গিনিজ বুকে রেকর্ড করা হচ্ছে।'

সেখানে আরো বলা হয়, 'অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়সহ পৃথিবীর সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসির জন্য এই ট্রাডিশনটি অনুকরণীয়।'

এদিকে গিনেজ বুক কমিটির সভাপতি এক ব্যক্তিগত ভিডিও বার্তায় উত্তেজিত কন্ঠে বলেন, 'বাংলাদেশে গিনেজ বুকের শাখা 'গিনিজ বুক' খোলার পর থেকে বইটা পুরো ফাঁকাই ছিলো। তবে আজ আমাদের জন্য এক বিশেষ আনন্দের দিন। গিনিজ বুকে আজ প্রথম একটি রেকর্ড করা হল।'

তিনি অতিসত্ত্বর দশ টাকার চা, সিঙ্গারা, সমুচা, চপ খেতে ঢাকা ভার্সিটি আসার আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, 'শুধু টিএসসি নয়, ঢাকা ভার্সিটির প্রতিটা ডিপার্টমেন্ট, প্রতিটা টং, প্রতিটা গাছের পাতাকে আমরা গিনিজ বুকের রেকর্ডের আওতায় আনতে চাই।' এ সময় তিনি মাননীয় ভিসি স্যারের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন।

অবশ্য ভিসি স্যার এ ব্যাপারে মুখ না খুললেও হাত খুলেছেন। তিনি তার এক 'অনলি মি' করা স্ট্যাটাসে লিখেছেন, 'কাইলকে সকালেই আনন্দ মিছিল কইরে ফ্যালবো। দীর্ঘতম আনন্দ মিছিল কইরে গিনিজ বুকে রেকর্ড করতি চাই (দাঁত বের করা হাসির ইমো)।

 

[eআরকি একটি স্যাটায়ার ওয়েবসাইট। এখানে প্রকাশিত কোনো খবর বিশ্বাস অবিশ্বাস যা-ই করুন না কেন, নিজ দায়িত্বে করুন।]

আরও পড়ুন-

৫৮২৩ পঠিত ... ১৩:৩৫, জানুয়ারি ২৯, ২০১৯

Top