নির্বাচন কমিশনার হিসেবে নিয়োগ পেতে পারেন আম্পায়ার তানভীর

১৩৭২ পঠিত ... ১৮:২৭, ডিসেম্বর ২৩, ২০১৮

গত ২২ ডিসেম্বর বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাঝে চলমান টিটুয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচে মিরপুরের শের-ই-বাংলা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মঞ্চস্থ হয় লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডের এক অনন্য নিদর্শন।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের দেওয়া ১৯০ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে যখন ব্যাট করছে বাংলাদেশ তখন ক্যারিবীয় উপকূলে আঘাত হানে বাংলাদেশি ‘ঘূর্ণিঝড়’ তানভীর। ম্যাচের চতুর্থ ওভারে পরপর দুটি বৈধ বলকে নো বল ঘোষণা করেন ফিল্ড আম্পায়ার তানভীর আহমেদ, যার শেষটিতে লিটন দাস ক্যাচ তুলে দেন। ক্যাচ ধরেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল যখন উল্লাসে মেতে উঠে তখনই তাদের আঘাত করে অস্টম মাত্রার ঘূর্ণিঝড় তানভীর। এতে মাঠে জরুরি অবস্থা জারি হলে ম্যাচ বন্ধ থাকে প্রায় ৮ মিনিট। তবে তানভীর আহমেদ আলোচনায় এসেছেন একেবারেই ভিন্ন এক কারণে। নির্বাচনের এই মৌসুমে চারদিকে দাবি উঠেছে, তানভীর আহমেদকে নির্বাচন কমিশনার করা হোক।

বাংলাদেশে সকল নির্বাচনেই বিরোধী দল এবং নির্বাচন পরবর্তী সময়ে পরাজিত দলের কাছ থেকে অভিযোগ শোনা যায়, নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড ছিল না। বলা হয়, নির্বাচন কমিশন লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড সৃষ্টিতে ব্যর্থ হয়েছেন। যেহেতু প্রতি নির্বাচনেই সমান খেলার মাঠের অভাব বোধ করা যায় এবং আম্পায়ার তানভীর আহমেদ সফলতার সাথে একটা অসমান মাঠ তৈরি করেছেন, তাই নির্বাচন কমিশনার হিসেবে তাকেই পারফেক্ট ব্যক্তি বলে ভাবছেন অনেকে। তানভীরের এই নতুন নো বলের সূত্রকে নির্বাচন বিশেষজ্ঞরা নাম দিয়েছেন- 'তানভীর'স ল অফ লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড'।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নির্বাচন কমিশনের একজন শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তা eআরকিকে জানান, ‘টিভিতে গতকালকের ম্যাচ দেখেই আমরা আগ্রহী হয়ে উঠি। এমন যোগ্য একজন লোকের বড়ই অভাব আজকের দিনে। আমরা ম্যাচ শেষেই তানভীর আহমেদের সাথে যোগাযোগ করেছি। সব ঠিক থাকলে এবারের নির্বাচনের আগেই আপনারা সুখবর শুনতে পারবেন।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে হোম টিমকে বিশেষ সুবিধা দেয়া তো নির্বাচন কমিশনের ঐতিহ্য! আম্পায়ার তানভীর খেলার ফিল্ডে যা করেছেন, নির্বাচনেও এমনটা কখনো দেখা যায়নি। আশা করছি তার অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলে হোম টিম বাদে অন্য যেকোনো দলের মার্কায় ভোটকে নো বল ঘোষণা করা হবে।’

তবে ব্যাপারটি নিয়ে কথা বলতে চাননি তানভীর আহমেদ। তার ঘনিষ্ঠ এক সূত্র জানিয়েছে, তিনি আনন্দিত। নির্বাচনের মতো এত বড় পরিসরের মাঠ নিয়ে কাজ করাটা তার আজীবনের আরাধ্য ছিল। এর আগে ঘরোয়া ক্রিকেটেও এমন অনেক সিদ্ধান্ত নিয়েও উপরমহলের সুদৃষ্টি না পাওয়ায় খানিকটা বিষণ্ণই ছিলেন তিনি। এবার এতো বড় সুযোগ পেয়ে তিনি যারপরনাই আনন্দিত।

অন্যদিকে ক্যারিবীয় অধিনায়ক কার্লোস ব্রাফেট ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন ‘নাউ উই আর ফিলিং লাইক বিরোধী দল! লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড না থাকার পরেও আমরা জয় পেয়েছি। এর থেকেই প্রমাণিত হয় জনগণ আমাদের সাথে আছে।’

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত নতুন নির্বাচন কমিশনার নিয়োগের খবর পেয়ে কপালে চিন্তার ভাজ পড়েছে বিরোধী দলগুলোর। আর নির্বাচন কমিশন সেজে উঠছে নতুন সাজে, নবীনকে বরণ করে নিতে।

১৩৭২ পঠিত ... ১৮:২৭, ডিসেম্বর ২৩, ২০১৮

Top