বৃদ্ধ দম্পতি ৫০ লাখ টাকা কুড়িয়ে পাওয়ার পর যা ঘটলো

১৯৮৬ পঠিত ... ০২:০৯, জানুয়ারি ০৩, ২০১৯

দুই বৃদ্ধ-বৃদ্ধা হাঁটতে হাঁটতে যাচ্ছিল। হঠাৎ দেখে, তাদের সেই ছেলেবেলার স্কুল।
—দেখ দেখ আমাদের সেই স্কুল।
—আরে হ্যাঁ হ্যাঁ, এই স্কুলেই তো আমরা প্রথম ভর্তি হই কেজি ক্লাসে। ওখানেই আমাদের পরিচয় তারপর বড় হলাম প্রেম-ভালাবাসা...

দুজনেই আবেগে আপ্লুত হলো।বৃদ্ধা বলল, 'চলো ঐ কেজি ক্লাসটা থেকে ঘুরে আসি, যেখানে আমাদের প্রথম দেখা হয়।'

তারা দুজনেই গেল এবং সেই কেজি ক্লাসটায় কিছুক্ষণ বসে থেকে অতীতের স্মৃতিচারণ করে ফের বাড়ির দিকে রওনা হলো।

এদিকে তারা যখন ফিরছিল, তখন একটা ব্যাংকের গাড়ি টাকা নিয়ে যাচ্ছিল, হঠাৎ ঐ গাড়ি থেকে একটা টাকার বান্ডিল পড়ে যায়। বৃদ্ধা তুলে নিল বান্ডিলটা। গুনে দেখে ওখানে ৫০ লাখ টাকা।

—চল ফিরিয়ে দিয়ে আসি ঐ টাকা।
—আরে না পাগল, এই টাকায় আমরা পৃথিবী ঘুরব।
—না না ছি ছি...কী বলছ?

বৃদ্ধার আপত্তি সত্ত্বেও বৃদ্ধ টাকা নিয়ে বাসায় লুকিয়ে রাখল। এদিকে এত টাকা হারিয়ে যাওয়ায় ঐ এলাকায় পুলিশ বাহিনী নামল। তারা একে একে সব বাসায় খোঁজ নিয়ে ঐ বৃদ্ধ-বৃদ্ধার বাসায় এলো।

—আপনারা ৫০ লাখ টাকার কোনো বান্ডিল পেয়েছেন?
—না।

এ সময় বৃদ্ধা এগিয়ে এলো। বলল, ‘পুলিশ অফিসার ও মিথ্যা কথা বলছে... টাকা ও পেয়েছে এবং লুকিয়ে রেখেছে!’

পুলিশ এবার বৃদ্ধকে ধরল, 'ঘটনা সত্যি?' বৃদ্ধ পুলিশের কানে কানে ফিসফিস করে বলল, 'আমার স্ত্রীর মাথায় সমস্যা আছে, ওকে জিজ্ঞেস করুন কখন কিভাবে টাকা পেয়েছি।'

পুলিশ তাই করল। বৃদ্ধাকে বলল, 'আপনার স্বামী কখন কিভাবে টাকা পেল বিস্তারিত বলুন।'

—আমি আর ও স্কুলে গিয়েছিলাম। কেজির ক্লাস থেকে বের হয়ে যখন যাচ্ছিলাম...

পুলিশ অফিসার হতাশ হয়ে বলল, ‘ঠিক আছে ঠিক আছে আর বলতে হবে না। চলো হে অন্য বাড়িতে!’

১৯৮৬ পঠিত ... ০২:০৯, জানুয়ারি ০৩, ২০১৯

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

রম্য

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top