সাগরে ভেসে থাকা প্লাস্টিকের আবর্জনা দিয়ে তৈরি শ্রীলংকার বিশ্বকাপ জার্সি

৩১২ পঠিত ... ২০:১২, মে ০৪, ২০১৯

২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপ উপলক্ষে দলগুলো সম্প্রতি উন্মোচন করছে নতুন জার্সি। আর তার পরপরই সেসব নিয়ে ভক্তদের মাঝে শুরু হয়ে যাচ্ছে নানান আলোচনা-সমালোচনা। সমালোচনা কতটা তীব্র হতে পারে, তার ‘উৎকৃষ্ট’ উদাহারণ ছিল কিছুদিন আগেই উন্মোচিত হওয়া বাংলাদেশের নতুন জার্সি। জনরোষে পড়ে বিসিবি এক প্রকার বাধ্য হয়েই বদলে ফেলেছে জার্সির ডিজাইন। অন্যদিকে গত ৩ মে (শুক্রবার) বিশ্বকাপের জার্সি উন্মোচন করে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটও চলে এসেছে আলোচনায়। তবে জাতীয় জীবনের মতো ক্রিকেটেও খারাপ সময় পার করা শ্রীলঙ্কা প্রশংসাই পেয়েছে।

 

দ্বীপদেশ শ্রীলঙ্কার জাতীয় প্রতীক হচ্ছে সিংহ। জার্সিতেও তাই সবসময় সিংহের আধিপত্যই দেখা গেছে। কিন্তু এবারের বিশ্বকাপ জার্সিতে সিংহের আধিপত্য খর্ব করেছে সামুদ্রিক কচ্ছপ। জার্সির অধিকাংশ অঞ্চলজুড়েই বিরাজ করছে কয়েকটি সামুদ্রিক কচ্ছপ। ভাবতে যাবেন না যে, পারফর্মেন্সের করুণ দশায় শ্রীলঙ্কান ‘লায়ন’দের কচ্ছপ বানিয়ে ফেলেছে ক্রিকেট বোর্ড। যদিও এমন ইঙ্গিত করে কিছুটা রসিকতা আর সমালোচনা হচ্ছেই, তবে প্রশংসার পাল্লাটাই অনেক ভারি।

এমনিতে উজ্জ্বল রঙয়ের এই জার্সি দেখতে বেশ সুদৃশ্য। তবে কেবলই সুদৃশ্য রূপের কারণে তো এতো প্রশংসা করতে বসে নেই কেউ। আসল ঘটনা জার্সি তৈরির উপাদান নিয়ে। এই বিশ্বকাপ জার্সি তৈরি করা হয়েছে সমুদ্রে ভেসে বেড়ানো প্লাস্টিকের আবর্জনা থেকে। আর প্লাস্টিক আবর্জনায় সামুদ্রিক যেসব প্রাণী হুমকির মুখে পড়েছে তার অন্যতম হচ্ছে কচ্ছপ। প্রায় বিপন্ন এই সামুদ্রিক কচ্ছপের নকশা দিয়ে সামুদ্রিক জীবনের প্রতি শ্রীলঙ্কান দলের অঙ্গীকার প্রকাশ করা হয়েছে।

শ্রীলঙ্কা জাতীয় দলের জার্সির স্পন্সর এমএএস হোল্ডিং নৌবাহিনীর সহায়তা নিয়ে সমুদ্রে ভেসে থাকা প্লাস্টিকের আবর্জনা সংগ্রহ করেছে, যা ব্যবহার হয়েছে উপকরণ হিসেবে। ২০১৯ বিশ্বকাপের জন্য সাগরের প্লাস্টিক আবর্জনা থেকে বিভিন্ন পণ্য উৎপাদন করা হলেও, জার্সির উপাদান হিসেবে এমন অভিনব ব্যবহার নতুন এক আদর্শ সৃষ্টি করতে পারবে বলেই বিশ্বাস এমএএস হোল্ডিং-এর কর্তাব্যক্তিদের।

ক্রিকেটে কোন দলের জার্সিতে এমন অভিনবত্ব না দেখা গেলেও ফুটবলের জার্সিতে এমনটা আগেও একাধিকবার দেখা গেছে। ২০১৬ সালে এমন জার্সি গায়ে চাপিয়ে মুখোমুখি হয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ ও বায়ার্ন মিউনিখ। আর চলতি মৌসুমে মাদ্রিদের থার্ড কিটের পুরোটাই সামুদ্রিক প্লাস্টিক আবর্জনা দিয়ে বানানো হয়েছে। ক্রিকেটেও এমন সূচনা করে তাই বিশ্বকাপ শুরুর আগেই একরকম চ্যাম্পিয়নই হয়ে গেল শ্রীলঙ্কা।

৩১২ পঠিত ... ২০:১২, মে ০৪, ২০১৯

আরও eআরকি

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

কৌতুক

রম্য

সঙবাদ

স্যাটায়ার


Top