রবীন্দ্রসঙ্গীত: যা গাওয়া হয়, যা আমি শুনি

১১২১৭ পঠিত ... ২২:২৬, আগস্ট ২৩, ২০১৬

 

রবীন্দ্রসঙ্গীত শুনতে গিয়ে মাঝেমাঝে চমকে যাই। কিছু চরণের অর্থ এমনভাবে আমার কানে ধরা দেয়, যা রবি ঠাকুর নিশ্চিতভাবেই বোঝাতে চাননি--

মূল চরণ ও গানের নাম:

এ মণিহার আমায় নাহি সাজে

আর আমি শুনি, যেন অপ্রত্যাশিত রকমের বেমানান ও অশোভন পরাজয়ের পর কৈফিয়ত হিসেবে কেউ গাইছে...



মূল চরণ:

তোমার মত এমন টানে কেউ তো টানে না

গানের নাম: তুমি ডাক দিয়েছ কোন সকালে

শুনে আমার মনে পড়ে যায় এলেমদার কোনও গঞ্জিকাসেবীর কথা...



মূল চরণ ও গানের নাম:

একটুকু ছোঁয়া লাগে, একটুকু কথা শুনি

শুনে আমার মনে হয়, যেন অশালীন স্পর্শ ও অশ্লীল শব্দ প্রসঙ্গে বলা হচ্ছে...



মূল চরণ:

বারেক তোমায় শুধাবারে চাই

গানের নাম: মনে কী দ্বিধা রেখে গেলে চলে

আর আমি শুনি, বারেক নামের ব্যক্তিকে বারে মদ্যপানের আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে...




মূল চরণ ও গানের নাম:

আজি মর্মর ধ্বনি কেন জাগিল রে

আর আমি শুনি চারপাশে মৃত্যুর ডাক...



মূল চরণ:

প্রভু, দাও মোরে আরো চেতনা

গানের নাম: প্রাণ ভরিয়ে তৃষা হরিয়ে

আর আমি শুনি, উপর্যুপরি চাহিদা মেটানোর আব্দারে ঈশ্বর অতিষ্ঠ হতে পারেন অনুমান করে তাঁকে ক্ষুব্ধ না হবার অনুরোধ জানানো হচ্ছে...



মূল চরণ ও গানের নাম:

যখন পড়বে না মোর পায়ের চিহ্ন এই বাটে

শুনে আমার মনে হয়, এখানে প্রকাশ পেয়েছে কারুর পশ্চাদ্দেশে লাথি হাঁকানোর সুযোগ চিরতরে হারিয়ে ফেলার আক্ষেপ

১১২১৭ পঠিত ... ২২:২৬, আগস্ট ২৩, ২০১৬

Top