ফেসবুকে কোনো ইস্যু না থাকলে যে ১০ ধরনের পোস্ট দিতে পারেন

৮৯২ পঠিত ... ১৭:৫৭, মার্চ ৩০, ২০১৯

খেয়াল করে দেখুন, বর্তমানে ফেসবুকে তেমন কোনো ইস্যু নাই। এমন তো প্রায়ই হয়, ইস্যু আসে ইস্যু যায়, আর সেই ফাঁকে ফেসবুক ভোগে অদ্ভুত এক ইস্যুহীনতায়! এমন সব ইস্যুহীন সময়ে আপনি হয়তো কী নিয়ে স্ট্যাটাস দেবেন তা ভেবে পান না। এই ইস্যুহীনতার দিনগুলোতে কী স্ট্যাটাস দিলে আপনি লাইক শেয়ারের খরস্রোতে সার্ফিং করতে পারবেন, তা নিয়ে ভেবেছে eআরকি স্ট্যাটাস বিশেষজ্ঞরা।

১# ফুল-ফল-লতা-পাতা, ক্রাশের বিয়ে, বিয়েবাড়িতে ক্রাশ, প্রেম ভালোবাসা ছ্যাকা, স্কুল কলেজ ভার্সিটি বন্ধু টাকা পয়সা ইত্যাদি যাপিত জীবনের বিষয় নিয়ে নিশ্চিন্তে ইচ্ছামত স্ট্যাটাস দিন। ভয় পাবেন না, ফেসবুকে এখন কোনো ইস্যু নাই যে কোনো সিরিয়াস ভাই এসে কমেন্ট করবে, 'দেশের এই অবস্থাতেও আপনি প্রেম ভালোবাসা নিয়ে পোস্ট দেন? ছি ভাই ছি। আপনার থেকে এটা আশা করিনি। আনফ্রেন্ড করলাম।'

সুতরাং ইস্যু চলাকালীন যেসব বিষয়ে স্ট্যাটাস দিতে আপনি ভয় পান এখনই সেগুলা দেয়ার রাইট টাইম।

২# ফেসবুকে কিছু বিষয় আছে, যেগুলোকে স্ট্যাটাস বিজ্ঞানের ভাষায় বলা হয় চিরকালীন ইস্যু। যে ইস্যুগুলো সবসময়য়ই প্রাসঙ্গিক, কখনো পুরাতন হয় না। এগুলোকে চিরসবুজ ইস্যুও বলা হয়। এর মধ্যে চলে নোয়াখালি বিভাগ চাই, মোটিভেশনাল স্পিচ ও স্পিকারদের পচানো, নাস্তিকদের দাঁতভাঙা জবাব, সহমত ভাই ইস্যু, বাঙালি জাতিকে পচানো ও হিরো আলম, মাহফুজুর রহমান, সেফুদা ত্রয়ী ইস্যু।

এগুলো নিয়ে আপনি যেকোনো দিন যেকোনো সময় যেকোনো পরিস্থিতিতে বনে-বাদাড়ে, জলে-জঙ্গলে যেকোনো জায়গা থেকে স্ট্যাটাস দিতে পারেন। পাবলিক সমান হারে খাবে।

৩# নিজের ক্রিয়েটিভিটি দিয়ে গল্প কবিতা প্রবন্ধ ফিচার স্যাটায়ার সার্কাজম উপন্যাস নাটক মহাকাব্য যেকোনো কিছু লিখে পোস্ট করতে পারেন। ক্রিয়েটিভি না থাকলেও চিন্তার কোনো কারণ নাই। আপনাদের সেবায় নিয়োজিত আছে, কালেক্টেড আর সংগৃহীত ভ্রাতৃদ্বয়। অন্য কোন উঠতি ভালো লেখকের প্রোফাইল থেকে যে কোনো লেখা সিলেক্ট করে কপি করে নিচে কালেক্টেড বা সংগৃহীত লিখে নিজের টাইমলাইনে পেস্ট করে দিন।

 

৪# এটেনশন সিকিং পোস্ট দিতে পারেন। ফেসবুকে এই ধরনের পোস্টে লাইক কমেন্ট সবচাইতে বেশি আসে। এটেনশন সিকিং পোস্টের অন্তর্গত পোস্টসমূহ হলো, 'আনফ্রেন্ড মিশন চালু, বাঁচতে পারবে না কেউ’, ‘আমার খালুর হার্টে ব্লক, তাকে বাঁচাতে স্টিকার কমেন্ট করুন’, ‘দশ হাজার কমেন্ট পড়লে আমি জনি সিন্সের ন্যুড পোস্ট করব’, ‘আর ফেসবুকে আসব না, বিদায়। ভালো থাকবেন সবাই’, ‘এই পোস্টে অমুক রিয়্যাক্ট পড়লে আমি আপনাকে তেল দিয়ে কিছু বলব’, ‘আমাকে নিয়ে এক লাইন লিখে যান’, ‘আমি সুইসাইড করব’, ‘কিচ্ছু ভালো লাগছে না’ ইত্যাদি ইত্যাদি।

৫# ফেসবুকে কিছু কমন ফানি পোস্ট আছে, যেগুলো সেই জুরাসিক যুগ থেকে আজ অব্দি চলে আসছে। এসব চিরযৌবনা পোস্টগুলোকে আপনিও ব্যবহার করতে পারেন। এই ধরনের প্রাগৈতিহাসিক ‘ফানি' কন্টেন্টের উদাহরণ হলো, লিখুন- আলহামদুলিল্লাহ বাচ্চার বাবা হলাম, বিসিএসে টিকলাম, বিয়ে করলাম, মহাকাশ জয় করলাম, হিন্দিতে চুল ছিড়লাম। তারপর কয়েকটা ডট ডট দিয়ে নিচে লেখা কালেক্টেড। আরেকটা পোস্ট হলো, শাকিব খানের ছবি পোস্ট করে লেখা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের জন্মদিনে শুভেচ্ছা। সেটাকে আবার শেয়ার দিয়ে লেখা ‘মানুষ মুরালিধরনকেও চেনে না।’ ইভেন প্রাগৈতিহাসিক আইডিয়াগুলোকে পুরোনো মদ হিসেবে নতুন বোতলে ভরে ট্রেন্ডও চালু করে ফেলতে পারেন।

৬# পুরাতন কোনো ইস্যু টেনে এনে আক্ষেপ করে পোস্ট দিন। ‘স্যরি অমুক, ইস্যু চলে গেছে আর আমরাও তোকে ভুলে গেছি’, ‘মা কিংবা বাবাকে নিয়ে শুধু নির্দিষ্ট দিবসে নয়, সবসময়ই আমাদের লেখা উচিত’, ‘এতো বড় ঘটনা ঘটলো মাত্র কয়েক মাস আগে আর আজ আমরা ভুলে বসে আছি, কীইবা শিক্ষা নিলাম ঐ ঘটনা থেকে?’ এমন সব ফরম্যাট থেকে পছন্দের একটি ফরম্যাট বেছে নিলেই চলবে। এ ধরনের পোস্টগুলোতে প্রচুর প্রতিক্রিয়া পাবেন। অনেকেই এসে জানাবেন যে তারাও একই ভাবনা ভাবছিলেন, তারাও ব্যথিত ইস্যুগুলোর এভাবে হারিয়ে যাওয়া বিষয় নিয়ে।

৭# ফেসবুকে যে কোনো ইস্যু নাই সে বিষয়ে স্ট্যাটাস দিন। ফেসবুক সেলিব্রেটিরা কত কষ্টে আছে ইস্যু না পেয়ে, লাইক কমেন্ট খরায় ভুগছে এটাও উল্লেখ করে সেলিব্রেটিদের পচাতে ভুলবেন না। বুদ্ধি করে এই পোস্টের মত আপনিও ইস্যু ছাড়া স্ট্যাটাস দেয়ার কিছু উপায় লিখে চামে স্ট্যাটাস মেরে কিছু লাইক কমেন্ট আয় করে নিতে পারেন।

৮# রিভিউ পোস্ট লিখুন। খাবার, বই, মুভি, স্থান, মানুষ, পাখি, ফুল যা কিছুর ইচ্ছা রিভিউ দিন। মনে রাখবেন, রিভিউ দিতে পয়সা লাগে না। আর রিভিউ পোস্ট ইস্যুহীন ফেসবুকেও দেয়া যায় যেকোনো সময়। এছাড়াও দেয়া যায় ক্রাশের নামে কনফেশন পোস্টও।

৯# লিখিত পোস্ট দিতে না পারলে সাহায্য নিন স্থিরচিত্রের। পরিচিত কাউকে দিয়ে কিংবা নিজেই স্বচিত্র গ্রহণ করে একটু আলো আঁধার মেশানো এডিট করে নিন। গুগলে সার্চ দিয়ে কোনো ইংরেজি বাণী বা বাংলা কবিতার লাইন খুঁজে বের করুন। সেটি ক্যাপশন দিয়ে ফেসবুকে পোস্ট করতে পারেন আপনার এই ‘অ্যাসথেটিক’ ছবি। শেয়ার না হলেও ভালোবাসার রিঅ্যাকশনের বন্যায় ভেসে যাবেন। তবে কেউ একবার হাহা দেয়া শুরু করলে তা কিন্তু দাবানলের মতো ছড়িয়ে গিয়ে হিতে বিপরীত হতে পারে।

১০# এতো কষ্ট করে পোস্ট দেয়ার কী দরকার, যারা পোস্ট দিচ্ছে তাদের পোস্ট শেয়ার করতে থাকুন। যেমন এই লেখাটিও শেয়ার করতে পারেন আপনার টাইমলাইনে।

৮৯২ পঠিত ... ১৭:৫৭, মার্চ ৩০, ২০১৯

Top