ডায়েট শুরু করার পরপরই আপনার সাথে যে ১২টি ঘটনা ঘটবেই

২৪১৬ পঠিত ... ১৯:১১, মার্চ ২৫, ২০১৯

স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল। সেই সুখের মূল ফুলে ফেঁপে উঠলে তা সুখ না দিয়ে বরং অসুখের কাতারেই ফেলা যায়। তাই তখন দরকার পরে জিভের লাগাম টেনে ধরে ডায়েট শুরু করার। আয়নায় নিজের দেহকে দেখে ‘কালকেই ডায়েট শুরু করে দিবো’ জাতীয় অনুভূতি জেগে উঠলেও, শুরু করতে গেলে আবিষ্কৃত হয় সম্পূর্ণ অন্য এক বাস্তবতা। যেই না আপনি আপনার পরম আরাধ্য ডায়েট প্ল্যান ফাইনালি বাস্তবায়ন করা শুরু করবেন, কয়েকটি ঘটনা আপনার সাথে ঘটবেই। সেইসব ঘটনাগুলোর তালিকা করেছেন ডায়েট শুরু করে বারবার ব্যর্থ হওয়া eআরকির ডায়েট গবেষক দল (যারা গত দুই দিন ধরে ডায়েটে আছেন)।

১# যেদিন ডায়েট শুরু করার সিদ্ধান্ত নিবেন, সেদিনই কাকতালীয়ভাবে আপনার বাসায় বাইরের কোন রেস্টুরেন্ট থেকে সুস্বাদু সব রাতের খাবার আসবে। যদি তা নাও আসে, তাহলে কোনো উপলক্ষ্য পালন করতে আপনার বাসার সবাই বাইরে খেতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিবে। অগত্যা পেট ভরে বাইরের খাবার খাওয়ার পর আপনার ডায়েট নতুন করে শুরু করতে হবে।

২# বাইরে যাওয়ার পর বিভিন্ন তেহারির দোকানের গন্ধ আপনাকে আচ্ছন্ন করে ফেলবে। আপনার এলাকা কিংবা আপনার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বা কর্মক্ষেত্রের আশেপাশে এত বিরিয়ানির দোকান আছে, তা আপনি নতুন করে আবিষ্কার করবেন।

৩# সোশ্যাল মিডিয়ায় ঢুকলেই চোখের সামনে বিভিন্ন রেস্টুরেন্টের বিজ্ঞাপন ও ফুড রিভিউ ঘুরতে থাকবে। বিখ্যাত এবং দামি রেস্টুরেন্টগুলো এ সময় নানান অফারও দিতে শুরু করবে। যেমন- ২০০ টাকায় যত খুশি তত খান, একটা বার্গার কিনলে আরেকটা ফ্রি... ইত্যাদি!

৪# ডায়েটের সময় চিনি, শর্করা ইত্যাদি জাতীয় খাবার থেকে দূরে থাকতে হবে শুনে আপনার হাড় কৃপণ বন্ধুরাও ট্রিট দিতে চাইবে। কিন্তু দিনটা যদি আপনার চিট ডে (সপ্তাহে যে একদিন আপনি ইছামতো খাবেন) হয়ে থাকে, তবে হঠাৎ আপনার বন্ধুদের কর্মব্যস্ততা সৃষ্টি হবে এবং এই ট্রিটের দাওয়াত অনির্দিষ্টকালের জন্য পিছিয়ে যাবে।

কিপটা-বন্ধুদের-ট্রিট

৫# ডায়েট শুরু করার পর আপনি হয়তো বিরিয়ানি বা মাংস না খেতে পারার ভয়ে শঙ্কিত হবেন, কিন্তু ডায়েট শুরুর পর আপনি আবিষ্কার করবেন যে পোলাও মাংস নয়, এক প্লেট সাদা ভাত খাওয়ার জন্যই আপনার দেহ-মন বিদ্রোহ করছে।

৬# ডায়েট করার কথা শুনার পর আপনার চারপাশে নানা স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের উদ্ভব হবে, যারা ‘নিয়মিত হাঁটলে এমনিতেই ওজন কমবে’, ‘ব্যায়াম করলে ডায়েট করার প্রয়োজন নেই’ ইত্যাদি সুচিন্তিত মতামত দিবেন। এবং ‘আমি যখন ডায়েট করতাম…’ বাক্য দিয়ে শুরু করে আপনাকে বিভিন্ন উদ্ভট খাবার খাওয়ার উপদেশও দিবে।

৭# আপনি ডায়েট করছেন শুনে আপনার পাশে ডায়েটে আগ্রহী মানুষের সংখ্যা হঠাৎ করে বেড়ে যাবে। এবং বিশেষভাবে আপনার ডায়েট চার্ট পাওয়ার জন্য সবাই দাবি করবে। আপনি আপনার ডায়েট শেয়ার করার পরেও তারা একটি বাদাম খাওয়ার আগেও জিজ্ঞেস করবে এটি খাওয়া ঠিক হবে কিনা।

৮# আধা বেলা সফলভাবে ডায়েট করার পর মনে জেগে উঠবে রাজ্য জয় করার মতো আনন্দ। এই সফল ডায়েট পালন করার আনন্দ উৎযাপন করতে একপ্লেট বিরিয়ানি কিংবা এক দুই স্লাইস কেক খেয়ে উঠবেন।

৯# কোনো কারণে যদি একটুখানি ডায়েটবিরোধী খাবার খেয়ে ফেলেন, তাহলে আর সেই দিন ডায়েট করে লাভ নেই বলে মনে হবে। মনের সুখে আরও কিছু ফ্যাটজাতীয় খাবার খেয়ে আপনি সেই দিনটিকে অঘোষিতভাবে একটি চিট ডে হিসেবে পালন করবেন।

১০# ডায়েট চলাকালে একটু-আধটু আনহেলদি খাবার খাওয়া যেতেই পারে। মাঝে মধ্যে খেলে তা খারাপ কিছু না। কিন্তু এইরকম খাবার খাওয়ার সময় যদি আপনার ডায়েটের খবর জানে এমন কেউ দেখে ফেলে, তবে তার মুখে ‘তুমি না ডায়েট করছো!’ আর্তনাদ আপনাকে শুনতেই হবে।

১১# সারা বছর বিয়ের দাওয়াতের অপেক্ষায় থাকার পর দেখা দেখা যাবে, ডায়েট শুরু করার পরই একের পর এক দাওয়াত আসছে। আর দাওয়াতে তো আর ডায়েট মানা যায় না!

১২# মাসের শুরুতে ডায়েট ধরার পর যখন কোনো কারণে সেটি সফল হয় না, তখন আবার পরের মাসের শুরুতে ডায়েট ধরার অপেক্ষা করবেন। এই 'পরের মাস'চক্র কয়েক বছরেও শেষ হবে না, বলাই বাহুল্য।

২৪১৬ পঠিত ... ১৯:১১, মার্চ ২৫, ২০১৯

Top