ফেসবুক বাংলাদেশি কোম্পানি হলে সার্ভার ডাউনের জন্য যে ১০টি কারণ দেখাতো

২১৬৮ পঠিত ... ১৫:৫৬, মার্চ ১৪, ২০১৯

গতকাল রাতে বাংলাদেশ সময় ১০টার কিছু আগে থেকে বিশেষ কারণে সার্ভার ডাউন ছিলো ফেসবুক আর ইন্সটাগ্রামের। ফেসবুকে কোনো লাইক-কমেন্ট-পোস্ট করতে না পেরে বিশ্বব্যাপী ফেসবুকাররা স্তম্ভিত (ক্ষেত্রবিশেষে আতঙ্কিত!) হয়ে পড়েন। দীর্ঘদিন যারা ফেসবুকের বাইরে বের হননি, তারাও বাধ্য হয়ে গতকাল বাস্তব জগতে সময় কাটিয়েছেন!

সে যাই হোক, ভাবুন তো ফেসবুক বাংলাদেশি কোম্পানি হলে হুট করে এমন সার্ভার ডাউন হওয়ার কারণগুলো কেমন হতে পারতো? ভাবার কাজে আপনাকে সহযোগিতা করেছে ফেসবুক না থাকায় পিসিতে মাইক্রোসফট ওয়ার্ড খুলে আজাইরা আইডিয়া লিখে ফেলায় ব্যস্ত আমাদের ফেসবুক গবেষক দল।  

১# দুষ্ট জিনের কারণে ফেসবুকের খারাপ বাতাস লেগেছে। মার্ক জাকারবার্গ গেছেন ওঝা ডাকতে। ওঝা এসে শস্যপোড়া দিয়ে ঝাড়ফুক করলেই ফেসবুক ঠিক হয়ে যাবে।

২# জাকারবার্গের পিচ্চি মেয়ে ফেসবুক আছাড় দিয়ে নষ্ট করে ফেলেছে। এখন সার্ভিসিং করানো লাগবে। কিন্তু ফেসবুক সার্ভিসিংয়ের দোকানদার বেশি টাকা চাচ্ছে বলে ঠিক করাতে টাইম লাগছে।

৩# গ্রামের মহাজনের কাছ থেকে চড়া সুদে টাকা ধার নিয়ে জাকারবার্গ শেষবার ফেসবুক আপডেট দিয়েছিলেন। এখন টাইমমতো টাকা শোধ করতে না পারায় মহাজন ফেসবুক নিয়ে বন্ধ করে দিয়েছেন।

৪# কোনো বখাটে ছেলে বেশি জোরে চালাতে গিয়ে ফেসবুককে অ্যাকসিডেন্ট করিয়েছে। এজন্যই আমাদের উচিত সাবধানে দেখেশুনে সব সিগন্যাল মেনে ফেসবুক চালানো। ফেসবুক চালানোর সময় তাড়াহুড়া করা উচিত নয়। মনে রাখতে হবে সময়ের চেয়ে সার্ভারের দাম বেশি।

৫# বেতন বোনাস বাড়ানো ও ফেসবুককে জাতীয়করণ করার দাবিতে 'ফেসবুক কর্মচারী সমিতি' ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে। দাবি না মানা অব্দি কোনো কাজ করা হবে না বলে ঘোষণা দিয়েছে তারা। ততদিন পর্যন্ত ফেসবুক বন্ধ থাকবে।

৬# ফেসবুকের সার্ভার ডাউন কেন, এই দোষ যে কাদের, সেটা তো সবাই বুঝতেছে। নাম বললে চাকরি থাকবে না। এখন জাফর ইকবাল, আয়মান সাদিক আর সোলায়মান সুখনরা চুপ কেন? এখন তারা কেন কিছু বলছে না? ল্যাঞ্জা ইজ ভেরি ডিফিকাল্ট টু হাইড।

৭# জাকারবার্গের বউ ঝগড়া করে ফেসবুক চালানো অফ করে দিয়েছিলো। বউয়ের রাগ ভাঙাতে গিয়ে জাকারবার্গ বলেছে, 'তুমি ফেসবুক না চালালে আমিও ফেসবুক চালাবো না।' এদিকে জাকারবার্গের বউয়ের রাগ এখনো ভাঙছে না। তাই কথা রাখতে গিয়েই ফেসবুক সাময়িক অফ রেখেছেন জাকারবার্গ।

৮# ফেসবুক সার্ভার ডাউনের পেছনে অবশ্যই বিরোধীদলের হাত আছে। বিরোধীদলীয় কিছু ছেলে ফেসবুক ধরে নড়াচড়া করাতেই সার্ভার ডাউনের ঘটনা ঘটেছে৷

৯# 'আরে ভাবি জানেন না, ফেসবুকের তো অমুকের মেয়ে ইন্সটাগ্রামের সাথে লাইন। আপনিই বলেন, কই ফেসবুক আর কই ইন্সটাগ্রাম। এদের একসাথে মানায়? ইন্সটাগ্রামের পাশে ফেসবুককে তো পাতিলের তলা লাগে। তো ইন্সটার বাপ ঘটনা জানতে পেরে ফেসবুক ইন্সটাগ্রাম দুইটাই বন্ধ করে দিছে। নে, এবার কর প্রেম। একদম ঠিক হইছে না ভাবি?'

১০. সারাদিন লেখাপড়া না করে মোবাইল টিপলে সার্ভার তো ডাউন হবেই...

২১৬৮ পঠিত ... ১৫:৫৬, মার্চ ১৪, ২০১৯

Top