ডাকসু নির্বাচনের নুরুল হক ও শোভনের এই ছবিটি যে ১০টি কথা বলে

৬৫০৯ পঠিত ... ২০:২৪, মার্চ ১৩, ২০১৯

গত ১১ মার্চ অনুষ্ঠিত হয়ে গেল বহুল প্রতীক্ষিত ডাকসু (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ) নির্বাচন। নানা ঘটনা-দুর্ঘটনায় মুখর এই নির্বাচনকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা তো বটেই অন্যান্য মানুষও খুব সহসাই ভুলতে পারবে না। শুধু ১১ মার্চ ভোট গ্রহণের দিনেই নয়, ডাকসু নির্বাচন খবরের জন্ম দিয়েছে ১২ তারিখেও। ১১ মার্চ দিবাগত রাতে ফল ঘোষণার পর জানা যায় ভিপি নির্বাচিত হয়েছেন কোটা সংস্কার আন্দোলন দিয়ে আলোচনায় আসা শিক্ষার্থী নুরুল হক। ভিপি পদে তার প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন ছাত্রলীগ সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন। নুরুল হকের বিজয়ী হওয়াকে তৎক্ষণাৎ মেনে নিতে পারেনি সিনেট ভবনে অবস্থিত ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। প্রতিবাদ শুরু করেন তারা। ১২ তারিখ সকালে নবনির্বাচিত ভিপি টিএসসি এলে ছাত্রলীগের একটি দল এসে হামলা করে তার উপর। দুপুরের দিকে নুরুল হক বলেন যে, তিনি ভিপি ও সমাজসেবা সম্পাদক ছাড়া কেন্দ্রীয় কমিটির বাকি সব পদে নির্বাচন চান এবং এই ঘোষণা না আসা পর্যন্ত সব ক্লাস বর্জন। তিনি ছাত্রলীগকে উদ্দেশ্য করেও একাধিক বিবৃতি দেন। আবার এই সময়ের মাঝে নুরুল হকের বিরুদ্ধে একটি মামলা হয়। ডাকসুর নবনির্বাচিত জিএস গোলাম রাব্বানী, যিনি আবার ছাত্রলীগেরও জিএস, নুরুল হকের বহিষ্কার দাবি করেন। 

অবশেষে শেষ বিকালে জানা যায়, ছাত্রলীগ সভাপতি শোভন বলেছেন যে, নুরুল হককে নিয়েই তিনি ও তার দল ছাত্রলীগ কাজ করবে। এরপর শোভন সদ্য ভিপি হওয়া নুরুলকে টিএসসি মিলনায়তনে অভিনন্দন জানান, কোলাকুলি করেন এবং নুরুলও তখন ক্লাস বর্জনের কর্মসূচি বাতিল করেন। এ নিয়ে অবশ্য তিনি ভোট বর্জনকারী অন্যান্য সংগঠনের তোপের মুখে পড়েন। এতো নাটকীয় পরিস্থিতির পর শোভন-নুরুলের কোলাকুলির ছবিটি সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ ভাইরাল হয়ে যায়। ছবিটি ভাবিয়েছে eআরকি দলকে। আমাদের মনে হয়েছে, নির্বাক ছবিটির যেন বলার আছে অনেক কথা। অথবা ছবিটি দিয়ে হয়ত বলা যায় দৈনন্দিন যাপনের অনেক কথা। 

 

#১


#২


#৩


#৪


#৫


#৬


#৭


#৮


#৯


#১০

৬৫০৯ পঠিত ... ২০:২৪, মার্চ ১৩, ২০১৯

Top