বাসা থেকে বিয়ে করার জন্য চাপ দিচ্ছে? মেয়েরা জেনে নিন বিয়ে ভাঙার ১০টি এক্সক্লুসিভ উপায়

২০৮১৪ পঠিত ... ২০:২০, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০১৯

আমাদের দেশের অনেক অভিভাবকেরাই মেয়েকে ভার্সিটিতে ওঠামাত্র জানিয়ে দেন, ফোর্থ ইয়ারে উঠলেই তাকে বিয়ে দেয়া হবে। কোনো কোনো অভিভাবক তো অদ্দুরও সময় দেন না, মেয়ে ইন্টার পাশ করলেই কিংবা ভার্সিটিতে উঠলেই বাড়িতে আসতে শুরু করেন 'পাত্রী দেখতে' ইচ্ছুক পাত্রপক্ষের দল! সে যাই হোক, বিয়ে করতে না চাইলেও বাসা থেকে বিয়ের জন্য চাপ দেয়া কিংবা বিয়ে ঠিক হয়ে যাওয়া মেয়েদের একটি অতি কমন সমস্যা (ছেলেদের সমস্যা এর উল্টোটা)! যদি ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিয়ে ঠিক হয়েই যায়, তাহলে কী করবেন? মেয়েরা, এত ভাবনার কিছু নেই। একটু মাথা খাটালেই এসব বিপদ থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। বিয়ে ভাঙার ১০টি দুর্দান্ত পদ্ধতি জানাচ্ছেন বিয়ে ভাঙা এক্সপার্ট ক্যামেলিয়া রওনক। 

১# ভুলেও ছেলেকে যেচে পড়ে বলতে যাবেন না, 'আমার আগে রিলেশন ছিল এবং সেই রকম প্রেম।' ট্রাস্ট মি, ছেলে বুঝে ফেলবে বিয়ে ভাঙার মতলব। সে জিদ করে হলেও আরো তাড়াতাড়ি করতে বিয়ের তারিখ এগিয়ে আনবে এবং আপনাকে বলবে, যা হয়েছে ভুলে যাও। আমাকে নিয়ে ভাবো।

২# মাথার সব চুল ফেলে দিয়ে ন্যাড়া হয়ে যান। বাংলাদেশের ছেলেরা এখনো এতও ভালো লোক হয়নি যে এমন অদ্ভুত ন্যাড়া মানবীকে বিয়ে করবে!

৩# পাত্রের সাথে ঘুরতে যান। দামী দামী সব জিনিস, খাবার অর্ডার করতে থাকুন। পাত্র ভাববে, বিয়ে না হতেই মেয়ের চাহিদা হাতির সমান, বিয়ে হলে না জানি কীসের সমান হয়। পাত্র এত চাহিদা সম্পন্ন মেয়েকে বিয়ে করতে চাইবে না।

৪# মুখটা করুণ করে পাত্রকে একটা গল্প শোনাবেন। অনেকটা এমন, 'অনেক আগে একবার ঘুমের ঘোরে এক কাজিনের গলা এমনভাবে চেপে ধরেছিলাম যে সেই মেয়েকে সেই রাতেই হাসপাতালে নিয়ে যেতে হয়েছে। এরপর থেকে আমার সাথে কেউ ঘুমায় না। ভাবতেই ভালো লাগছে, আমার এই একাকী রাতের অবসান ঘটতে যাচ্ছে।' ভূতের আছর আছে চিন্তা করে নিজের গলাটা একবার ধরে পাত্র মানে মানে কেটে পড়বে। কে চায় ঘুমের মধ্যে ভূতের দাবড়ানি খেতে।

৫# পাত্রের সামনে গিয়ে নিজের যেকোনো মেয়ে বান্ধবীর অতিরিক্ত প্রশংসা করুন। মাল-মশলা দিয়ে প্রশংসাটাকে এমন দিকে নিয়ে যান যেনো পাত্র ভাবে আপনি লেসবিয়ান! বিয়ে ওই মুহূর্তেই বরবাদ।

৬# পাত্র আপনার ফেসবুক আইডি চাইলে বলুন ঘন্টাখানেক পর দিচ্ছি। তাতে সে ভাববে, আপনি নিশ্চয়ই আপনার প্রেমিকের ছবিগুলো এই সময়ের মধ্যে ডিলিট করবেন। বিয়ে ওখানেই শেষ।

৭# পাত্র যতই ঠিক থাকুক, তারপরও বলবেন, আপনার এটা ঠিক না, সেটা ঠিক না। হেয়ার কাট ভালো না। চাপ দাড়ির বদলে ছাগলে দাড়ির কাট দিতে। চুলে ৫ রকমের হেয়ার কালার দিতে৷ গলায় পৈতা, চেইন, গয়নাগাটি সব পরে ইয়ো ইয়ো হতে। পাত্র বিরক্ত হয়ে ওখানেই বিয়ে ভেঙে দেবে।

৮# গুগল থেকে আবাসিক হোটেলের ঠিকানাগুলো মুখস্থ করে পাত্রের সামনে তোতাপাখি মতো ঠিকানাগুলো বলতে থাকবেন। পাত্র 'দুলাভাইকে নিয়ে ভালো থাইকেন আপা' বলে তখনই পলায়ন করবে।

৯# নিজের ছেলে ফ্রেন্ডকে বয়ফ্রেন্ড সাজিয়ে এনে পাত্রের সাথে পরিচয় করিয়ে দেবেন। ফ্রেন্ডকে শিখিয়ে দিবেন আড়ালে নিয়ে চোখ টিপ মেরে পাত্রকে যেন বলে, 'কী... বিয়ে করতে যাচ্ছেন? করেন, বুঝবেন!' পাত্র এরপর আপনাকে বিয়ে করার কথা ভুলেও ভাববে না।

 ১০# ওপরের একটাতেও কাজ না হলে চোখ কান বন্ধ করে পাত্রকে বলে দিন, আপনি প্রেগন্যান্ট। ছেলে সাথে সাথে বিয়ে ক্যান্সেল করবেই করবে! তবে একেবারেই নিরুপায় না হলে এই সিস্টেমে না যাওয়াই ভালো। কারণ বোনাস সাইড ইফেক্ট হিসেবে পরিবার থেকে উত্তম মধ্যম মাইর খাওয়ার সম্ভাবনা আছে।

২০৮১৪ পঠিত ... ২০:২০, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০১৯

Top