বিমান ছিনতাইকারীর মোটিভ সম্পর্কে ফেসবুকীয় গোয়েন্দাদের ১০ তত্ত্ব

৭২৮ পঠিত ... ২০:০৮, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৯

গত ২৫ ফেব্রুয়ারি রোববার 'ময়ূরপঙ্খী' নামক বিমান ঢাকা থেকে উড্ডয়নের পর ছিনতাইকারীর কবলে পড়ে। ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিকেল ৫টা ৫ মিনিটে ছেড়ে বিমানটির চট্টগ্রাম হয়ে দুবাই যাওয়ার কথা ছিল। প্রায় দুই ঘণ্টার টান টান উত্তেজনার পর উড়োজাহাজ ছিনতাইচেষ্টার অবসান ঘটে। গতকাল সন্ধ্যা ৭টা ২৪ মিনিটে চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মাত্র আট মিনিটের কমান্ডো অভিযানে উড়োজাহাজটিতে থাকা অস্ত্রধারী তরুণ নিহত হন (প্রথম আলো)।

তবে বিমান ছিনতাইয়ের এই ব্যর্থচেষ্টার ঘটনা নিয়ে অনলাইন পোর্টালগুলো থেকে তো বটেই, এমনকি বিভিন্ন সূত্র থেকেও নানান রকম তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। একবার জানা গেলো হাইজ্যাকার লোকটি নাকি কোনো নায়িকার প্রেমে ব্যর্থ হয়ে বিমান ছিনতাই করতে এসেছিলেন, আরেকবার দেখা গেলো 'আরে সে তো ম্যারিড'! কোথা থেকে আবার কথা এলো, অমুক নায়িকাই নাকি তার ওয়াইফ। একবার নাম জানা গেলো মাহাদী, আরেকবার পলাশ (মাঝখানে আরও কিছু নাম এসেছিল)। এদিকে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) কমিশনার মাহাবুবুর রহমান আবার বলেছেন, লোকটির হাতে নাকি ছিল 'খেলনা পিস্তল' (খেলনা পিস্তল দিয়েই দুই ঘন্টার টানটান উত্তেজনা?)।

এত 'কনফিউজিং' সব বক্তব্যের মধ্যে মূল ঘটনা কী, হাইজ্যাকার কী উদ্দেশ্যে বিমান ছিনতাই করছিলেন, এসব এখনো পরিষ্কার নয়। নিশ্চয়ই অনন্তকাল ধরে সেসব নিয়ে তদন্ত চলবে। কিন্তু আমাদের ফেসবুক হোমপেজে ফেসবুকীয় বিমান নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ এবং অনলাইন গোয়েন্দারা দিয়েছেন নানান রকম তত্ত্ব। তাদের সেইসব তত্ত্ব দেখে আমরাও তাই ভাবতে বসেছিলাম বিমান ছিনতাইকারীর কিছু সম্ভাব্য মোটিভ!

 

১# ছিনতাইকারী আসলে একজন নতুন লেখক। বইমেলায় তার বই বের হয়েছে। কিন্তু মেলার এই শেষের সপ্তাহেও তার বইয়ের প্রথম মুদ্রণ শেষ হয় নি। তাই ভাইরাল হওয়ার আশায় তিনি বিমান ছিনতাই করতে গিয়েছিলেন।

২# ছিনতাইকারী ফেসবুকে একটা মিম পোস্ট করেছিলো৷ দম ফাটানো হাসির মিমটিতে কিছু মানুষ হাহা রিএকশন না দিয়ে লাইক দেওয়ায় তিনি ভয়াবহ রেগে যান। সেই রাগের মাথায়ই বিমান ছিনতাই এর মত ঘটনা ঘটিয়ে ফেলেছেন তিনি।

৩# ছিনতাইকারীর প্রেমিকা তাকে বলেছিলো, 'বাবু তুমি না খেলে আমিও খাবো না।' কিন্তু পরে তিনি খোঁজ নিয়ে দেখেন, তার প্রেমিকা ঠিকই খেয়ে নিয়েছে৷ তাও আবার তার ফেভারিট কাচ্চি বিরিয়ানি। সেই দুঃখে তিনি তার প্রেমিকার ফেভারিট মেজবান খেতে প্লেন হাইজ্যাক করে চট্টগ্রাম চলে গিয়েছিলেন।

৪# ছিনতাইকারী মার্লব্রো এডভান্স ছাড়া আর কোনো সিগারেট খেতেন না (আমরা জানি সিগারেট খাই না, পান করে। কমেন্টে জ্ঞান না দিলে ভালো হয়)। কিন্তু সম্প্রতি এই ব্র্যান্ড বন্ধ হয়ে যাওয়ার কথা চলছে শুনে তিনি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পরেন। তাই তিনি আমেরিকায় গিয়ে সরাসরি ফিলিপ মরিসের সাথে দেখা করতে বিমান ছিনতাই করে বসেন।

৫# অনেকদিন পর বিয়ের দাওয়াত পেয়ে তিনি ব্যাপক আনন্দিত হন। কিন্তু বিয়ের মেন্যুতে বোরহানি না থাকায় তিনি মানসিক ভারসাম্য হারান। কী করবেন বুঝতে না পেরে সোজা বিমান ছিনতাইয়ের চেষ্টা চালান।

৬# তার ক্রাশ মেসেজ সিন করে রিপ্লাই দেয় না৷ তাই এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপের আশায় বিমান ছিনতাই ছাড়া তিনি আর কোনো পথ খুঁজে পাননি।

৭# ছিনতাইকারী নিছক ভাল্লাগে বলেই এই ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটিয়েছেন। খুশির ঠেলায় ঘোরতে তিনি খেলনা বন্দুক হাতে নেমে পড়েছিলেন প্লেন হাইজ্যাক করতে...

৮# মেহজাবিন আর অপূর্ব/নিশোর একই কাহিনীর নাটক দেখতে দেখতে সে ক্লান্ত। নতুন ধরনের নাটক সৃষ্টির আশায় এই কাজ করেছেন ছিনতাইকারী।

৯# এয়ারপোর্টে ব্যাপক মশার উপদ্রব থেকে বাঁচতে তিনি প্লেনে উঠে পালাতে চেষ্টা করছিলেন।

১০# তিনি হয়তো এইচএসসি পরীক্ষার্থী। এইচএসসি পরীক্ষার বিদঘুটে রুটিন দেখে প্রধানমন্ত্রীর কাছে রুটিন বদলানোর অনুরোধ করার জন্য তিনি বিমান ছিনতাই করে ফেলেন।

বোনাস: eআরকির ডেস্ক ক্যালেন্ডারের দাম শুনে মাথা ঠান্ডা করতে চট্টগ্রামের পতেঙ্গা বিচ থেকে ঘুরে আসতে চেয়েছিলেন তিনি। আর সেজন্যই...

৭২৮ পঠিত ... ২০:০৮, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৯

Top