জাফর ইকবালের সমস্যা সম্পর্কে প্রশ্ন করায় জনৈক আওয়ামীকর্মী যে যুগান্তকারী উত্তর দিয়েছিলেন

১০২০৪পঠিত ...০০:১৩, মার্চ ০৫, ২০১৮

বিজ্ঞানলেখক অভিজিৎ রায়ের হত্যাকাণ্ড নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর একজন উপদেষ্টার বক্তব্যের সমালোচনা করে ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল বলেছিলেন যে, ঐ বক্তব্য মৌলবাদীদের জন্য একরকম সবুজ সংকেত। ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের মন্তব্য সরকারবিরোধী আখ্যা দিয়ে সিলেট আওয়ামীলীগ তার বিরুদ্ধে বিপ্লবী মিছিল ও সমাবেশ করে। (মে, ২০১৫)

ক্ষিপ্ত স্থানীয় আওয়ামীলীগ ও ছাত্রলীগের সংগ্রামী সদস্যরা এই মিছিলে অংশ নেন। এ সময় তারা অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের ব্লগার পরিচয় সবাইকে জানিয়ে দেয় স্লোগানে স্লোগানে। কখনোই কোন ব্লগ না লিখে ব্লগার হয়ে যাবার কারণে জাফর ইকবালের প্রতি মিছিলকারীদের ক্ষোভ সৃষ্টি হয়। তখন মিছিলে স্লোগান দেয়া হয় 'ব্লগার জাফর ইকবালের আস্তানা, ভেঙে দাও গুঁড়িয়ে দাও'।

মিছিলের এক পর্যায়ে একজন সংগ্রামী কর্মীকে একজন সাংবাদিক মাইক্রোফোন ধরলে সাংবাদিককে নিজের ছোটবেলার শিক্ষক বলে ভুল করে মুখস্থ বলতে থাকে। সে বলে যে, নেতার প্রতি কটুক্তির কারণে জাফর ইকবালের কঠোর শাস্তি হওয়া উচিত। এ পর্যায়ে দুষ্ট সাংবাদিক মাঝপথে তার কাছে জানতে চান জাফর ইকবালের সমস্যাটা ঠিক কোথায়? তখন জাফর ইকবালের নানাবিধ সমস্যার কথা হঠাৎ করে মনে করতে যেয়ে তিনি রাগে ক্ষোভে ভাষা হারিয়ে ফেলেন। কিন্তু আওয়ামীলীগের একজন একনিষ্ঠ কর্মী হিসেবে ভাষা হারিয়ে ফেলাকে গুরুতর অপরাধ মনে করে মিষ্টি একটা হাসি হেসে তিনি বলেন, 'এটা... আসলে বিষয় জানি না!'

১০২০৪পঠিত ...০০:১৩, মার্চ ০৫, ২০১৮

পাঠকের মন্তব্য

 

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
    আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

    আইডিয়া

    গল্প

    রম্য

    সঙবাদ

    সাক্ষাৎকারকি

    স্যাটায়ার

    
    Top