পাকিপ্রেমি বাংলাদেশিদের সাহায্যে যেভাবে পাকিস্তানের সামরিক শক্তি বৃদ্ধি পায়

২৮৫৫ পঠিত ... ২১:৪০, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১৯

 

১ম বন্ধু: শোনেন, যুদ্ধ লাগলে পাকিস্তান খুব আরামসে জিতে যাবে।

২য় বন্ধু: জিতবে মানে? যুদ্ধে ভারত কতক্ষণ টিকতে পারে, সেটাই দেখার বিষয়।

৩য় বন্ধু: আমার বড় মামার ছোট শালা বলেছে পাকিস্তানের কাছে ২০০ পারমানবিক বোমা আছে। একটা মারলেই তো ভারত ফুট্টুস!

৪র্থ বন্ধু: তো, সেটাই! আমার ছোট চাচার ক্লোজ ফ্রেন্ড জসিম আংকেল বলেছেন তলে তলে আরো বেশি বোমা আছে। পাকিস্তান স্বীকার করে না।

৫ বন্ধু: হ, একবার পত্রিকায় পড়েছি পাকিস্তানে মাটির নিচে বোমা বানানোর কারখানা আছে। রাডারে ধরা পড়ে না। পাকিস্তান চাইলে এক দিনে ভারত দখল করে ফেলতে পারে।

৬ষ্ঠ বন্ধু: আমার ধারনা পাকিস্তানের কাছে ডজন খানেক হাইড্রোজেন বোমাও আছে। ভাবে বুঝা যায়। আল্লাহ আল্লাহ করে যুদ্ধটা লাগুক, ভারত টের পাবে পাকিস্তান কী জিনিস।

৭ম বন্ধু: পাকিস্তান হচ্ছে মুসলিম দেশগুলোর যোগ্য নেতা। তারা শুধু নিজের দেশ নিয়ে চিন্তা করে না। পৃথিবীর প্রতিটি মুসলিম দেশের জন্য বোমা বানাচ্ছে পাকিস্তান। অন্তত ১৮টি মুসলিম দেশ রক্ষা করার মত বোমাতো এখনই আছে।

৮ম বন্ধু: এটা আপনি কোথা থেকে জেনেছেন? আমাকে আমার এক আত্মীয় বলেছেন। তিনি আগে আর্মিতে ছিলেন, এখন রিটায়ার্ডে আছেন। উনি বলেছেন আগামী দশ বারো বছরের মধ্যে পুরা মুসলিম বিশ্বকে বাঁচানোর মত বোমা বানিয়ে ফেলবে পাকিস্তান।

৯ম বন্ধু: নতুন একটা বোমার কথা শুনেছি কিছুদিন আগে। আমাদের বাসায় এক পাকিস্তানি বিজ্ঞানী এসেছিলেন। আমার মেজো খালার ভাসুরের সাথে। উনি বলেছেন এই বোমা মাটির নিচ দিয়ে যাবে। কোন শব্দ হবে না। সিগন্যাল থাকবে না। তারপর ভারতের একেবারে মধ্যখানে মাটির নিচে বিস্ফোরিত হবে। পুরো ভারত ধ্বসে পড়বে। সবাই জানবে এটা ভূমিকম্প, কেউ জানতে পারবে না আসলে কী ঘটেছে। পাকিস্তান এরকম ৫০টা বোমা বানাবে। তখন পুরো পৃথিবী পাকিস্তানের নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে।

১০ম বন্ধু: কিন্তু ভাইরে, নিজের দেশের কথাও ভাবতে হবে। আপনি আপনার মেজ খালার ভাসুরের মাধ্যমে পাকিস্তানকে অনুরোধ করেন, বোমাটা এমনভাবে ব্যবহার করতে, যেন বাংলাদেশের কোন ক্ষতি না হয়। অবশ্য আমার এক দূর সম্পর্কের ফুফা বলেছেন পাকিস্তান যদি বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তেও বোমা ফেলে, শুধু ভারত ক্ষতিগ্রস্থ হবে, বাংলাদেশ নয়। কারণ বাংলাদেশ মুসলিম কান্ট্রি। পাকিস্তানের বোমা কোন মুসলিম কান্ট্রির ক্ষতি করবে না। ওই ফুফা অনেক বড় আলেম। খুব ভালো মানুষ।

পাকিস্তানের সামরিক শক্তি এভাবে বৃদ্ধি পায়। কারণ পাকিদের সামরিক শক্তি একটি বিশ্বাসের নাম, এটা কোন বাস্তবতা নয়।

পাকিস্তানের যখন সামরিক শক্তি বৃদ্ধির দরকার হয়, তখন তারা দশ বারো জন পাকিপ্রেমি বাংলাদেশিকে বসিয়ে দেয়, তারা বসে বসে এভাবে শক্তি বৃদ্ধি করে।

২৮৫৫ পঠিত ... ২১:৪০, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১৯

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

রম্য

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি


Top