দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী সমর চৌধুরী যেভাবে 'রেম্বো' বাহিনীর অভিযানে ধরা পড়লেন

৪২০১পঠিত ...২০:৩৪, জুন ০৩, ২০১৮

সে অনেককাল আগের কথা। তখন রাজ্যে দৈত্য-দানো কিছু ছিল না, কিন্তু ছিল সন্ত্রাস! তখনকার দিনের সবচেয়ে বড় সন্ত্রাসী সমর চৌধুরী।

কী তার চাহনি, কী তার প্রচণ্ড প্রতাপ! পুরো শহর তার ভয়ে তটস্থ হয়ে থাকতো। সমর চৌধুরী যখন দলবল নিয়ে রাস্তায় শোডাউন দিত তখন দোকানপাটের শাটার নামানোর শব্দে কান পাতা দায় হয়ে পড়ত। এলাকার পুলিশও তার কব্জায় ছিল।

প্রায়ই এখানে সেখানে বড় বড় অপরাধের খবর পাওয়া যেত। সমর চৌধুরীর তীব্র হুংকারে শোনা যেত ‘আমি সমর! মরি না, মারি!’

সমর চৌধুরীকে ভয় পেত না এমন কোনো মানুষ তখন ছিল না। কোন বাচ্চা না ঘুমাতে চাইলে মায়েরা ‘সমর চৌধুরী এসে তোমাকে ধরে নিয়ে যাবে’ বলে ভয় দেখাত। কোন দুষ্টু বাচ্চা না খেতে চাইলে মায়েরা ভয় দেখাত ‘খাও, তা নাহলে সমর চৌধুরী এসে তোমাকে খেয়ে ফেলবে।’ তাকে ভয় পেত রাজা, ভয় পেত গজা। সবাই তার ভয়ে জড়সড়। এখনো তার কথা শুনে আঁতকে ওঠে সবাই, বাচ্চারা ভিজিয়ে ফেলে প্যান্ট!

কিন্তু একদিন রাণী ক্ষমতা গ্রহণ করলেন। দেশে প্রতিষ্ঠা হল সুশাসন। বিচার-ব্যবস্থা, আইন-আদালত স্বাধীন হলো। তখন দেশের পুলিশের রেম্বো টিম নামলো মাঠে। তারা আর্তনাদ করে চিৎকার দিল, ‘সমর, তোর আর রক্ষে নেই রে। এবার তুই পালাবি কোথায়?’

এই হুংকার ছড়িয়ে পড়ল গ্রামে গঞ্জে, হাটে বাজারে… দেশের সর্বত্র। যেই ভাবা সেই কাজ। অভিযানে নেমে পড়ল ‘রেম্বো বাহিনী’।  কিছু ইয়াবা আর একটি রাইফেল দিয়ে দুর্ধর্ষ সমর চৌধুরীকে ধরে ফেললো বাংলার দুই বীর রেম্বো। হাফ ছেড়ে বাঁচল দেশের মানুষ। দেশব্যাপী আনন্দ মিছিল হলো, মিষ্টি বিতরণের খবর এলো দেশের নানান প্রান্ত থেকে। নেতারা বিবৃতি দিলেন ‘আমরা অন্যায়কারীদের সাথে কোন আপোষ করি না। দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠা হবেই!’ দেশ মুক্তি পেলো অনেক ভয়ানক এক সন্ত্রাসীর হাত থেকে।

পত্রিকায়, টিভির খবরে প্রকাশ পেলো দুর্ধর্ষ সমর চৌধুরীর ছবি। দু’হাতে আলতো করে একটি বন্দুক হাতে দাঁড়িয়ে আছেন লোকটি। অস্ত্রের প্রতি কতই না মমতা, ছবি না দেখলে বোঝাই যেত না। কিন্তু লোকটির পকেটে ছিল একটা কলম। এটি কিন্তু যেই সেই কলম নয়। এটি আসলে সমরের গোপন পারমাণবিক বোমার ভাণ্ডারের টিপ বোতাম। এটা পকেটে নিয়ে ঘুরে সে। এক চাপ দিলেই পারমাণবিক বোমা সক্রিয় হয়ে আঘাত হানবে দেশব্যাপী।

অবশ্য জনগণ যাতে ভয় না পায়, তার জন্য এর কথা প্রকাশ করেনি কোন মিডিয়া। শুধু এসেছে সমরের ক্লান্ত একটি চেহারা আর ম্রিয়মান মুখ।

(নিঝুম মজুমদারের আইডিয়া অবলম্বনে)

৪২০১পঠিত ...২০:৩৪, জুন ০৩, ২০১৮

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
    আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

    আইডিয়া

    গল্প

    রম্য

    সঙবাদ

    সাক্ষাৎকারকি

    
    Top