কেমন আছেন বাতাবি লেবু চাষিরা? বিটিভির কাছে জানতে চায় দেশবাসী

১৫৯২ পঠিত ... ২১:৩৭, মার্চ ১১, ২০১৯

কেমন আছে বাতাবি লেবু? কেমনই বা দিন কাটছে বাতাবি লেবুচাষিদের? এমনিতেই দেশে উল্লেখযোগ্য খবরের নিদারুণ অভাব। তার উপর বেশ অনেকদিন ধরেই বাতাবি লেবুর কোন খবর আসছে না বাংলাদেশ টেলিভিশনে (বিটিভি)। অথচ সাধারণ জনগণ উন্মুখ হয়ে আছে বাতাবি লেবুর হাল-হকিকত জানতে। তাই দেশ ও জাতিকে বাতাবি লেবুর ফলনের আপডেট জানাতে একটি বিশেষ eআরকি প্রতিনিধি দল ছুটে যায় বাতাবি লেবুর অভয়ারণ্য দিনাজপুরে।  

বাসে চেপে উত্তরবঙ্গের এই জেলায় ঢুকতেই বাতাবি লেবুর সুঘ্রাণে মাতোয়ারা হয়ে গেল eআরকি দল। এর আগে দিনাজপুর পরিদর্শনে গিয়ে যে জাম্বুরাচাষীর সাথে আমরা দেখা করেছিলাম, তার কাছেই গেলাম প্রথমে। আমাদের দেখেই খুশিতে যেন ফেটে পড়লেন তিনি। এখনো বাতাবি লেবুর সিজন আসেনি বলে, আগের সিজনের শুকনা বাতাবি লেবু দিয়েই আপ্যায়ন করলেন। তিনি বললেন তার সুখ-দুঃখের কথা। খানিকটা অনুযোগের সুরেই তিনি eআরকিকে জানান যে, বিটিভিতে প্রচারের পর সারা দেশের মানুষ তাদের কথা জানতে পেরেছিল, সেজন্য বাতাবি লেবুর চাহিদাও বেড়ে গিয়েছিল বাজারে। অথচ দীর্ঘদিন ধরে একেবারেই কোন খোঁজ নেই বিটিভির। তারা যেন ভুলেই গেছে সবুজ ফলটির কথা। এ নিয়ে দিনাজপুরের বাতাবি লেবু চাষিরা খুব বিষণ্ণ দিন যাপন করছে।

দিনাজপুরে eআরকির আগমনের খবর ছড়িয়ে পড়লে আমাদের সাথে দেখা করতে দূর-দূরান্ত থেকে ছুটে আসেন আরও অনেকে। তাদের অধিকাংশই কৃষিকাজের সাথে জড়িত। গত বছরে বাতাবি লেবুর জনপ্রিয়তা দেখে তারাও নিজ নিজ বাগান আর ক্ষেতের যত্ন নিয়েছেন। বাম্পার ফলন করেছেন আম, জাম, কাঁঠাল, কলা, বেগুন, মিষ্টি আলু, কুমড়া ইত্যাদি বিভিন্ন ফসলের। তাদের সবারই একটাই দাবি- বাতাবি লেবু যদি বিটিভির এত ফুটেজ পেতে পারে তাহলে অন্যান্য ফসল কেন নয়!

কৃষকদের সাথে কথা বলতে গিয়ে পাওয়া যায় নানান চমকপ্রদ তথ্য। একজন বেগুনচাষি জানান, তার ক্ষেতের বেগুনেরা অভিমান করেছে ‘ফুটেজ’ না পেয়ে। তিনি বলেন, ‘বেগুন তো হইতেছিলই না। তাদের দাবি টিভিতে দেখাইতে হইব। আমি বুঝানোর চেষ্টা করছি যে, সবাই অমন কপাল নিয়া জন্মায় না। তারা কিছুতেই বুঝে না। পরে চিটাগাংয়ে বেগুন বোমার ঘটনার পর বেগুন হওয়া শুরু করল।’ প্রায় কাছাকাছি অভিজ্ঞতা বাকিদেরও। একজন কুমড়াচাষি বলেন যে, বিটিভির উদ্দেশ্যে তারা লংমার্চ করবেন বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

তবে একাধিক বাতাবি লেবু চাষি বলেছেন একদমই বিপরীত কথা। তাদের ভাষ্যমতে, বেশি বেশি ফুটেজ পেয়ে লাজুক জাম্বুরা আর জন্মাতে চাচ্ছে না। অনেকেরই জাম্বুরা গাছে জাম্বুরার কোন লক্ষণই নেই। এ ব্যাপারে ক্ষুদ্ধ একজন প্রতিবাদী কৃষক বলেন ‘আপনারা কি আর কোন খবর পান না? দ্যাশে কি আর কোন খবর নাই? আমাগো বাতাবি লেবুর পিছে লাগছেন কেন! ভাগেন!’ এ সময়ে অন্যান্য কৃষকেরাও এই হুজুগে ক্ষেপে গেলে eআরকি প্রতিনিধি দল দ্রুত দিনাজপুর থেকে প্রস্থান করে।

১৫৯২ পঠিত ... ২১:৩৭, মার্চ ১১, ২০১৯

Top