যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে মাহফুজ'স মেকওভার সেলুন (এমএমএস)

৭৬৬ পঠিত ... ২০:০৫, ফেব্রুয়ারি ০৬, ২০১৯

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া একটি ছবিতে দেখা যায়, এটিএন বাংলা ও এটিএন নিউজের চেয়ারম্যান ড. মাহফুজুর রহমান, চিত্রনায়িকা পপির মেক-আপ ঠিক করে দিচ্ছেন। ছবিটি সম্পর্কে বলার সময় মাহুফুজুর রহমান দাবি করেন, পপি নাকি এ ব্যাপারে বলেছিলেন যে ড. মাহফুজুর রহমান তার মেক-আপম্যান।

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ছবিটি

এই দাবি করার পাশাপাশি পপির সম্পর্কে অত্যন্ত বিরূপ মন্তব্য করেছেন মাহফুজুর রহমান। গত ৪ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় এটিএন বাংলার কার্যালয়ে চ্যানেলটির 'সময় ও অসময়ের গল্প' সিরিজের নাটকের সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেছেন, ‘পপি একটা হারামজাদী। খুব খারাপ করেছে সে। একদিন এক সিনেমায় (সাহসী যোদ্ধা) তার মেকআপ ঠিক করে দিয়েছিলাম। এটা নিয়ে সে বলেছে আমি নাকি তার মেকআপম্যান। নিউজ হয়েছে। শয়তান মেয়ে কাজটা খারাপ করেছে। এই হারামজাদীকে যেন এটিএনের ত্রি-সীমানায় না দেখি। পরপর ৫টা ছবিতে আমি তাকে নিয়েছি। কিন্তু আমি তাকে মেকআপ করিয়েছি এটা কিভাবে সে ফেসবুকে লিখলো? পপি এর জন্য আমার পা ধরে মাপ চাইছে। আমি তাকে বলেছি, মাপ করবো যদি ক্যামেরার সামনে আমার পা ধরে ক্ষমা চাও। আর দর্শক সেটা দেখবে।’

তিনি আরও মন্তব্য করেন, 'আমি সবসময় নতুনদের সুযোগ দিয়ে দেই। নতুনদের বেলায় আমি নিজেই সব করে দেই। গানের বেলায় আমি নিজেই সুর করি, নিজেই গাই, আবার নিজেই মেকাপ করি।

এমন মন্তব্য সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জানার জন্যে এ ব্যাপারে মাহফুজুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেছিল আমাদের মেক-আপ গবেষক দল। সে সময় মেক আপে ব্যস্ত থাকায় তিনি ফোন রিসিভ করতে পারেননি। তবে এরপর আমাদের মিসড কল খেয়াল করে তিনি রিং ব্যাক করে বলেন, 'আমার বক্তব্যটাকে মিডিয়া মিস-ইন্টারপ্রেট করে প্রচার করছে। আমাকে মেক-আপম্যান বলায় আমি তেমন একটা মাইন্ড করিনি। আসলে আমরা গোপনে গোপনে একটি মেক-ওভার সেলুন চালু করার কথা চিন্তা করছিলাম। পপি এই সিক্রেটটা এভাবে ফাঁস করে দিলো দেখে আমি আপসেট হয়েছি।’ একান্ত ফোনালাপে ফেসবুকবরেণ্য এই কন্ঠশিল্পী আরও জানান, 'প্রযোজনা, পরিচালনা, গানের সুর করা, গান লেখা, মডেলিং, কোনটা করিনি আমি? নতুন কিছু করার তাড়না আমাকে সবসময়ই তাড়িয়ে নিয়ে বেড়ায়। যেহেতু নতুন শিল্পীদেরকে আমি নিয়মিত মেকআপ করিয়ে দিই, তাই ভাবলাম, মেকআপের কাজটাও অফিসিয়ালি শুরু করবো। আই এম ভেরি এক্সাইটেড!'

পপির এই আচমকা তথ্য ফাঁস করে দেয়া তার উদ্বোধনের আনন্দে পানি ঢেলে দিলো নাকি জানতে চাইলে তিনি জবাব দেন, ‘তা তো কিছুটা হলোই। কিন্তু এখন আর কী করার, চিন্তা করছি সামনের সপ্তাহেই লঞ্চিং করে ফেলবো। একটু তাড়াতাড়ি হয়ে গেলো, হোক, নেগেটিভ মার্কেটিংও এক প্রকার মার্কেটিং।’

ফোন রাখার আগে জানালেন একটি এক্সক্লুসিভ পরিকল্পনার কথাও- 'সম্প্রতি মৃণাল হকের বানানো ভাস্কর্য দেখে নাকি কার ভাস্কর্য বানানো হয়েছে তা দর্শকরা বুঝতে পারছেন না। তাই মানুষের পাশাপাশি ভাস্কর্যদেরও মেক-আপ করানোর সুবিধা থাকবে এই সেলুন। সেলুনে গিয়ে মেক-আপ করানোর পাশাপাশি এখানে হোম-প্যাকেজ সুবিধাও থাকবে। তিনি জানান, ‘ভাস্কর্যদের মেক-আপ করিয়ে যদি দর্শকদের চেনানো যায় কোনটা কার ভাস্কর্য, তবে তা যেমন দর্শকদের জেনারেল নলেজ বৃদ্ধি করবে, তেমনি মৃণাল হক তার কাজের স্বীকৃতিও পাবেন। এক ঢিলে দুই পাখি মারার মতো ব্যাপার!’

৭৬৬ পঠিত ... ২০:০৫, ফেব্রুয়ারি ০৬, ২০১৯

Top