সালমান এফ রহমানের সাহায্যার্থে গঠিত হচ্ছে মুক্ত তহবিল

২০৫৪৩ পঠিত ... ১৯:৪৪, ডিসেম্বর ০১, ২০১৮

বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তিদের তালিকায় স্থান পাওয়া বেক্সিমকো গ্রুপের মালিক সালমান ফজলুর রহমানের বাড়ি বা আসবাবপত্র নেই। নেই কোনো ইলেকট্রনিক সামগ্রী। নেই বৈদেশিক মুদ্রা। ঢাকা-১ আসনে মনোনয়নপত্রের সঙ্গে দাখিল করা হলফনামায় তিনি এ তথ্যই দিয়েছেন (সূত্র: দৈনিক যুগান্তর)।

খবরটি প্রকাশের পরপরই সাড়া পরে গেছে দেশজুড়ে, সোশ্যাল মিডিয়াতেও আলোচনার শীর্ষে চলে এসেছে এই ব্যবসায়ীর দুর্দশার খবর। দেশের একজন স্বনামধন্য ব্যবসায়ী ও আধ্যাত্মিক মানুষ এমন অবস্থায় থাকবেন, সেটা কেউই যেন মেনে নিতে পারছেন না। ফেসবুকে অনেককেই দেখা যায় দুঃখ প্রকাশ করতে। তবে এরই মাঝে কেউ কেউ সমস্যা নিরসনেও এগিয়ে এসেছেন। সালমান এফ রহমানের সাহায্যার্থে গঠন করা হয়েছে মুক্ত তহবিল।

কৃতজ্ঞতা: কালা কাউয়া

গত ৩০ নভেম্বর খবরটি প্রকাশের পর থেকেই একদল উদ্যমী তরুণ-তরুণী ফেসবুকের মাঠে নেমে এসেছে। তহবিলের জন্য ফেসবুক ইভেন্ট খোলা হয়েছে। ইভেন্ট খোলার কিছুক্ষণের মাঝেই দলে দলে জনগণকে ‘গোয়িং’ দিতে দেখা যায়। এমনিতেই এই শীতের মৌসুমে দুস্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করতে নানা ইভেন্ট খোলা হয় সামাজিক যোগাযোগের এই মাধ্যমে, প্রচুর মানুষ সাহায্যের হাতও বাড়িয়ে দেন। সেই আমেজেই সবাই ঝাঁপিয়ে পড়েছেন সালমান এফ রহমানের জন্য।

কী করে দেশের একজন শীর্ষ ধনীর এমন পরিণতি তা নিয়ে চলছে আলোচনা। অনেকেরই ধারণা, একজন সাধুপুরুষ হয়ে তিনি পৃথিবীর সব আকাঙ্খা-মোহ থেকে দূরে সরে গেছেন। তাই কোন সম্পত্তিকেই নিজের বলে ভাবতে পারছেন না। গোপন একটি সূত্র সালমান এফ রহমানের বরাত দিয়ে জানিয়েছে তিনি গত কিছুদিন ধরে একলা একলাই বলে চলেছেন ‘দুই দিনেরই দুনিয়াই কিছুই নিজের না। সবই উপরওয়ালার!’

তবে কেউ কেউ বলছেন অন্য সমস্যার কথা। ধারণা করা হচ্ছে, সালমান এফ রহমান বয়সের কারণে চোখে ঠিকমত দেখতে পারছেন না। ফলে নিজের ঘর কিংবা ঘরের আসবাব কোনটাই তার নজরে পড়ছে না। এ ব্যাপারে একজন চক্ষু বিশেষজ্ঞের সাথে কথা বললে তিনি আমাদের জানান, ‘একটা বয়সের পর স্বভাবতই মানুষের দৃস্টিশক্তি কমে যায়। আর সাধু বা দরবেশ মানুষেরা চোখের চাইতেও অন্তর্দৃষ্টিকেই বেশি গুরুত্ব দেন। আর এই অন্তর্দৃষ্টিতে জীবনের এসব বাহ্যিক চাকচিক্য চোখে পড়ে না।’

তবে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তহবিলে প্রচুর অনুদান জমে গেছে। অনেকে নিজের ব্যবহার করা পুরোনো আসবাবপত্র, শীত্রবস্ত্র এসবও দান করেছেন। মানবতার আহ্বানে গণমানুষের এমন সাড়া দেয়াকে একটি সামাজিক বিপ্লব হিসেবেই দেখছেন বিশেষজ্ঞরা।

 

সালমান এফ রহমান সংক্রান্ত আরও পড়ুন:

২০৫৪৩ পঠিত ... ১৯:৪৪, ডিসেম্বর ০১, ২০১৮

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

রম্য

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top