মিরপুরে খোলা হচ্ছে গুলশানের নতুন শাখা 'গুলশান-৩'

১০২৭৬ পঠিত ... ২১:২৫, অক্টোবর ১৬, ২০১৮

ঢাকাবাসীর তীব্র আক্ষেপের এলাকা হিসেবে খ্যাত 'মিরপুর' হতে যাচ্ছে এক নতুন গুলশান। সকল আক্ষেপ আর অভিযোগের অবসান ঘটিয়ে মিরপুরে খোলা হচ্ছে গুলশান এর তিন নম্বর শাখা, গুলশান-৩। অলীক স্বপ্ন মনে হলেও এই তথ্য পরিচ্ছন্ন ঢাকার মতই সত্য। 

ঢাকা-১৪ আসনের এমপি মো. আসলামুল হক বলেছেন, একাদশ জাতীয় নির্বাচনে জনগণের ভোটে আবার এমপি হলে মিরপুরকে গুলশান বানাবো (সূত্র: দৈনিক যুগান্তর)। 

খবর প্রকাশের প্রায় সাথে সাথে মিরপুরের বিভিন্ন এলাকায় মিষ্টি বিতরণ করেছে এলাকাবাসী। অনেকেই খবরের ধাক্কা সামলাতে পারেননি। দুয়েকজনকে আকাশের দিকে তাকিয়ে বিড়বিড় করে 'গুলশান-গুলশান' বলে আনন্দাশ্রু ফেলতে দেখা গেছে। 

কিন্তু মিরপুর কিভাবে হবে 'গুলশান'? জনমনে প্রশ্ন দানা বাঁধতেই পাওয়া গেছে বিভিন্ন ভাবনা। অনেকেই মনে করেন, হয়তো অফিসিয়ালি কাগজপত্রে মিরপুরের নাম বদলে 'গুলশান-৩' রাখা হবে। কেউ কেউ ভাবছেন, মিরপুরের সব পুরোনো বাড়ি ভেঙে গুলশানের আদলে গড়ে তোলা হবে নতুন বাড়িঘর। 

তবে মিরপুরকে গুলশানের চেয়ে উন্নত এলাকা দাবি করে বরং গুলশানকেই মিরপুর বানানো উচিত বলে মন্তব্য করেছেন কতিপয় মিরপুরবাসী। নাম প্রকাশে একটু বেশি ইচ্ছুক মিরপুইরা কাশেম বলেন, 'গুলশানে খালি একখান লেক। আমগো এইদিকে প্রতিডা রাস্তায়ই লেকের সুব্যবস্থা আছে। গুলশানে যেমন ওয়াটার বোট দিয়া যাওয়া যায়, মিরপুরে আপনে ওয়াটার-বাস, ওয়াটার-সিএনজি, ওয়াটার-রিকশা বেবাক জিনিসে চইড়া আইতে পারবেন। গুলশানেত্তে আমরা মিরপুরের পোলাপাইঞ্জ কম কিসে?' 

অন্যদিকে মিরপুরের কতিপয় দূরদর্শী বাসিন্দা ইতোমধ্যেই তাদের বাড়ির নেমপ্লেটে ঠিকানা এডিট করে 'গুলশান-৩' লিখেছেন। কেউ কেউ ফেসবুকে লাইফ ইভেন্ট খুলেছে লিখেছেন- 'lives in গুলশান-৩'। 

অন্যদিকে গুলশান ১ এবং ২ এর বাসিন্দারা আজ বিকাল থেকেই মিরপুরে আনাগোনা করছেন। গুলশান-৩ এ বাড়িভাড়া কম হলে তারা এদিকে চলে আসবেন বলে জানিয়েছেন। গুলশানের জনৈক বাসিন্দা বলেন, 'কম খরচে গুলশানে থাকা গেলে এদিকটাই প্রিফার করবো।' অবশ্য এমপির বক্তব্য প্রকাশের সাথে সাথে মিরপুরের বাড়িওয়ালারা ভাড়া বাড়িয়ে দিতে পারেন বলে জানিয়েছেন মিরপুর ব্যাচেলর সমিতির কয়েকজন সদস্য। 

এ ব্যাপারে জানতে এমপি মো. আসলামুল হকের মোবাইলে কল করলে তার পিএস কল রিসিভ করেন। আমরা গুলশান-৩ এর এমপির সাথে কথা বলতে চাইলে তিনি 'রং নাম্বার' বলে ফোন রেখে দেন। সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তিনি আমাদের নাম্বার ব্ল্যাক লিস্টে দিয়েছেন।

১০২৭৬ পঠিত ... ২১:২৫, অক্টোবর ১৬, ২০১৮

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

রম্য

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top