বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে 'সহমত ভাই' নামক তেলের খনি আবিষ্কৃত

৭৯৬৭ পঠিত ... ২২:০২, আগস্ট ৩১, ২০১৮

যেকোন দেশের চালিকাশক্তি হিসেবে জ্বালানি হিসেবে প্রাকৃতিক সম্পদের ভূমিকা সব সময়েই অনস্বীকার্য। প্রায় সব দেশেই মূল জ্বালানি হিসেবে কোন না কোন ধরনের প্রাকৃতিক জ্বালানিই ব্যবহার করা হয়। বাংলাদেশের ক্ষেত্রে যেটা প্রাকৃতিক গ্যাস। তবে প্রাকৃতিক হলেও হবে কি, এই যোগান তো আর অফুরন্ত নয়। ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে এবার বাংলাদেশের বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে চলছে অন্য একটি প্রাকৃতিক সম্পদের উৎসের খোঁজ। সম্ভাব্য এই খণিজ সম্পদটি হলো তেল। তবে প্রচলিত যে তেল দেখে আমরা  অভ্যস্ত, সম্ভাব্য এই খণিজ তেল তা থেকে ভিন্ন।


ঘটনার সত্যতা জানতে, ঢাকার প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে গেলে ভার্সিটির এক ছাত্র জানান সব পাবলিক ভার্সিটিতে না, মূলত যেসব ভার্সিটিতে ছাত্র-রাজনীতি আছে, সেখানেই এই তেলের দেখা বেশি মেলে। তিনি জানান, ভার্সিটির বিশেষ কিছু স্থানে, বিশেষ করে হল সংশ্লিষ্ট এলাকাগুলোয় এই তেলের ব্যবহার বেশি দেখা যায়।

ঘটনার গভীরতা বুঝতে ভার্সিটির রাজনৈতিক দলের সাবেক প্রধানের সাথে ফোনে যোগাযোগ করা হলে, প্রথমেই তিনি বিষয়টি অস্বীকার করে বলে উঠেন ‘কখনোই না, হতেই পারে না, বাংলাদেশের কোন জায়গায় কোনরকম সহিংসতার সাথে ছা…’ তাকে দ্রুত থামিয়ে খণিজ তেল নিয়ে জানতে চাইলে তিনি গলা পরিষ্কার করে বলেন, ‘দেখুন জনগণের মঙ্গলের জন্য সবসময়েই আমরা নিয়োজিত। আমাদের ছাত্র পরিচয়টা আগে, রাজনৈতিক পরিচয়টা পরে। আমাদের লক্ষ্য থাকে ভার্সিটি এরিয়ায় ছাত্ররা যাতে একটা সুস্থ পরিবেশে পড়াশুনার পাশাপাশি রাজনীতিও করতে পারে। এখন এই রাজনীতির বাইপ্রোডাক্ট হিসেবে যদি দেশে খণিজ সম্পদের নতুন একটা যোগান আশে তাহলে মন্দ কী!’ তিনি আরোও বলেন, ‘আমাদের চিন্তা শুধু বর্তমান নিয়েই না। ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করি দেখেই তো আমরা এই তেলের ব্যবহার চালু করছি। আমাদের চেষ্টা থাকবে ধীরে ধীরে এই তেল ব্যবহারের গন্ডি দেশ ছাড়িয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও সুপরিচিত হবে।’


বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষের এক ‘পলিটিক্যাল’ ছাত্র বলেন, ‘আমি এ ব্যাপারে ভাইয়ের সাথে সহমত পোষণ করছি।’ তিনি ভাইয়ের আদর্শ ভুলেননি এবং রাজপথ ছাড়েননি দাবী করে জানান, ‘প্রাকৃতিক গ্যাস শেষ হলেও দেশের মানুষজন যাতে জ্বালানি সংকটে না ভোগে, সে কথা চিন্তা করেই এমন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এটা আমাদের সাফল্যর মুকুটে আরেকটি পালক হিসেবে যুক্ত হবে।’

অনিশ্চিত সূত্র থেকে পাওয়া অন্য সংবাদের ভিত্তিতে জানা গেছে, এই তেল উত্তোলনের জন্য সর্বাধুনিক প্রযুক্তিতে আবিষ্কার করা হয়েছে একটি স্বচ্ছ ও আন্তর্জাতিক মানের মেশিন। সূত্রটি আরও জানায়, তেল উত্তোলনকারী এই অত্যাধুনিক যন্ত্রের নাম ‘সহমত ভাই মেশিন’।

৭৯৬৭ পঠিত ... ২২:০২, আগস্ট ৩১, ২০১৮

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

রম্য

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top