রাজধানীতে এসে গেলো নতুন রাইড শেয়ারিং সার্ভিস 'কান্ধে উঠাও'

১৯১৭পঠিত ...২২:১৯, জুন ০৫, ২০১৮

টানা বৃষ্টির কারণে ঢাকার রাজপথ বর্তমানে পানিতে সয়লাব। রাস্তায় পানি ওঠার ফলে সাধারণ যানবাহন চলাচলে যেমন অসুবিধা হচ্ছে, তেমনি সমানুপাতিক হারে বেড়েছে জ্যাম। ফলে যাতায়াতের ব্যাপারে সাধারণ জনগণ ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন।  এই ভোগান্তির কথা চিন্তা করেই উবার, পাঠাও, সহজের পর ঢাকায় এলো নতুন রাইড শেয়ারিং অ্যাপ সার্ভিস- ‘কান্ধে উঠাও!’ বৃক্ষের পরিচয় যেমন ফলে, তেমনি এই অ্যাপের পরিচয়ও তার নামে। বাইকে নয়, গাড়িতে নয়, এবার কাঁধে করেই জন সাধারণ ঠিক সময়ে গন্তব্যে পৌঁছে যাবেন।

ডিজাইন: তরীকুল ইসলাম সৈকত

এত এত অপশন থাকতে কাঁধকেই কেনো বেছে নেয়া হলো প্রশ্নের জবাবে অ্যাপটির প্রতিষ্ঠাতা বলেন, ‘নিউজে দেখেন নাই, মাহমুদউল্লাহর কাঁধে ভর দিয়ে জয়ের বন্দরে বাংলাদেশ? ব্যাপারটা ওরকম। আজকালকার দিনে ঠিক সময়ে গন্তব্যে পৌঁছানো তো জয়েরই সামিল! তাই এরকম নাম বেছে নেয়া!’

নাম প্রকাশ না করার শর্তে অ্যাপটির এক ইউএক্স ডিজাইনার বলেন, ‘আপনি যদি একটু চিন্তা করেন তাহলে খেয়াল করে দেখবেন, যুগ যুগ ধরেই মানুষের কাছে কাঁধ একটি ভরসার প্রতীক। কাপলরা যেমন একজন আরেকজনকে কাঁধে মাথা রাখতে দেবার প্রমিজ করে, তেমনি আবার মানুষজন সুযোগ পেলেই একজন আরেকজনের কাঁধে উঠে যায়। মানে একটু লজিক্যালি চিন্তা করলে কিন্ত দেখবেন- ‘কান্ধে উঠাও’ নামটা ঠিকই আছে!’ প্রতিষ্ঠাতা আরোও বলেন, ‘কান্ধে ওঠাও’ আমাদের হাজার বছরের পুরনো সংস্কৃতি। হাসন রাজার গান শুনেন নাই, কান্দে হাসন রাজার মন ময়না রে? হাসন রাজা পর্যন্ত মানুষের কান্ধে চড়ে চলাফেরা করতেন। তিনি পারলে আমরা কেনো নয়!’

১৯১৭পঠিত ...২২:১৯, জুন ০৫, ২০১৮

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
    আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

    আইডিয়া

    গল্প

    রম্য

    সাক্ষাৎকারকি

    স্যাটায়ার

    
    Top