আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপ জিতলে আর এমন জলাবদ্ধতা দেখবেন না: সাঈদ খোকন

১০৯৪পঠিত ...২১:৩৭, মে ২৫, ২০১৮

গত বছর ২৬ জুলাই স্থানীয় সরকারমন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছিলেন ‘আমি প্রমিজ করছি, সামনের বছর থেকে আর এমন (জলাবদ্ধতা) দেখবেন না। কিছুদিনের মধ্যেই নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করা হবে।’ (সূত্র: প্রথম আলো)

অথচ এমন প্রতিজ্ঞার পরও প্রতিবারের মত এ বছরও ঢাকা বারবার তলিয়ে যাচ্ছে পানির নিচে। বর্ষাকাল আসার মাস দুয়েক আগে থেকেই বারবার ঢাকাকে ডুবতে দেখে আসন্ন বর্ষা নিয়ে শঙ্কিত হয়ে পড়ছেন ঢাকাবাসীরা। দুটো সিটি কর্পোরেশন এবং ওয়াসা কাউকেই খুব একটা গা করতে দেখা যাচ্ছে না এ বিষয়ে।

চলমান জলাবদ্ধতা নিয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, ‘বৃষ্টি পড়লে জলাবদ্ধতা হতেই পারে। এটা স্বাভাবিক জলাবদ্ধতা। এমনটা তো আমরা নতুন কোনো সমস্যা দেখছি না।’

কিন্তু জলাবদ্ধতা হ্রাসের কোন লক্ষণ বাস্তবে কোথাও দেখা যাচ্ছে না। ঢাকাবাসী আসন্ন বর্ষাকে সামনে রেখে বিভিন্ন রকম প্রস্তুতি নেয়া শুরু করেছে। অনেকেই নৌকা বানাচ্ছেন, কেউ কেউ সাঁতার শেখার জন্যে বিভিন্ন কোর্স করছেন। হঠাৎ বৃষ্টিতে সৃষ্ট জলাশয় কীভাবে অতিক্রম করতে হয় তা নিয়েও বিভিন্ন শর্ট কোর্স চলছে বলে একাধিক ভুক্তভোগীর সাথে কথা বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকনকে গত বছর স্থানীয় সরকারমন্ত্রীর করা প্রমিজের কথা মনে করিয়ে দিলে তিনি ‘ইউরেকা’ বলে চিৎকার দিয়ে ওঠেন। এরপর চকচকে চোখে বলেন ‘আমি প্রমিজ করছি, আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপ জিতলেই আর জলাবদ্ধতা দেখবেন না। বিশ্বকাপ জেতার কিছুদিনের মধ্যেই নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করা হবে। এ আমার ওয়াদা।’

তিনি আরও বলেন ‘আমরা আশা করেছিলাম গত বিশ্বকাপের পর থেকেই আর কোন জলাবদ্ধতা থাকবে না। কিন্তু মারিও গোটজের গোল আমাদের সকল আশা ভরসা এবং ঢাকা শহরকে ডুবিয়ে দিয়েছে।’

১০৯৪পঠিত ...২১:৩৭, মে ২৫, ২০১৮

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
    আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

    আইডিয়া

    গল্প

    রম্য

    সাক্ষাৎকারকি

    স্যাটায়ার

    
    Top