জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে উদ্বোধন হল ‘ধাক্কাধাক্কি বিভাগ’

১৩০১২পঠিত ...২০:৪৬, এপ্রিল ১৮, ২০১৮

রাজধানী ঢাকার অদূরে অবস্থিত জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে চালু হচ্ছে ‘ধাক্কাধাক্কি বিভাগ’। মহাসমারোহে গত ১৭ এপ্রিল ভোরে এই বিভাগের উদ্বোধন করেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বেশ কজন শিক্ষক। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রান্সপোর্ট চত্বরে একটি ধাক্কাধাক্কি প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। সেখানে বর্তমান উপাচার্য এবং সাবেক উপাচার্যের সমর্থিত শিক্ষকেরা দুই দলে বিভক্ত হয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েন একে অপরের উপর।

তবে প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে eআরকির জাবি ক্যাম্পাস প্রতিনিধি আমাদের জানান, গত কদিন ধরেই ক্যাম্পাসে উত্তাল অবস্থা বিরাজ করছে। এক পক্ষের শিক্ষকেরা ধর্মঘট ঢেকে বসেন। সে লক্ষ্যে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে ভোর ৪টায় ট্রান্সপোর্ট চত্বরে যেয়ে গেটে তালা ঝুলিয়ে দিতে চান। কিন্তু অন্য পক্ষের শিক্ষকেরা গোপন সূত্রে খবর পেয়ে গেরিলা আক্রমণ চালান। তাতে খানিকটা হাতাহাতি সৃষ্টি হয়।

ধাক্কাধাক্কির এক পর্যায়ে শিক্ষকেরা একে অপরকে দোষী সাব্যস্ত করতে থাকেন। eআরকির দুর্ধর্ষ আইটি বিভাগ ইন্টারনেট থেকে যে ভিডিও উদ্ধার করে তাতে দেখা যায়, একজন সম্মানিত শিক্ষক অন্য একজনকে বলছেন ‘তুমি আমার গায়ে হাত দিয়েছ! মনে রেখো!’ এবং অপর একজন শিক্ষক ক্রমাগত বলে যাচ্ছেন ‘প্রমাণ করতে পারলে চাকরি ছেড়ে দিব।’

eআরকি প্রতিনিধি আরও জানান কোন কোন শিক্ষক তখন তরুণ বয়সের কথা মনে করে এই শীতল রাতে আপ্লুত হয়ে যান এবং কোন একটা গাড়ি ভেঙে ফেলার আহ্বান করেন। উদ্ভুত পরিস্থিতিতে যখন সবাই দিশেহারা হয়ে পড়েন তখন একটি সমঝোতায় এসে সিদ্ধান্ত নেয়া হয় যে, এই বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘ধাক্কাধাক্কি বিভাগ’ চালু করার।

তবে পুরো বিষয়টাই অস্বীকার করেন শিক্ষকেরা। এ বিষয়ে নাম না প্রকাশ করার শর্তে বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য বলেছেন ‘ব্যাপারটি পুরোটাই বন্ধুত্বের নিদর্শন। আমরা যারা সহকর্মী তারা এমনটা করতেই পারি। ব্যাপারটিকে খেলা হিসেবে দেখা উচিত বলে আমি মনে করি।’ এই বয়সে এসে এমন প্রকাশ্যে ধাক্কাধাক্কি করা নিয়ে সমালোচনার প্রসঙ্গ উঠলে তিনি বলেন ‘বয়স হয়েছে বলেই কি খেলার ইচ্ছাটা মরে গেছে নাকি? মনের দিক দিয়ে এখনো আমরা তরুণ!’

আমাদের উদ্ধারকৃত ভিডিওটি দেখুন-

১৩০১২পঠিত ...২০:৪৬, এপ্রিল ১৮, ২০১৮

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
    আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

    আইডিয়া

    গল্প

    সাক্ষাৎকারকি

    স্যাটায়ার

    
    Top