ঢাবি ভিসিকে প্রধান অতিথি করে উদ্বোধন করা হলো ছাত্রলীগের নতুন শাখা 'উদ্ধারলীগ'

২৯১০পঠিত ...১৮:০৬, জানুয়ারি ২৮, ২০১৮

ঐতিহ্যবাহী বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ঐতিহ্যকে আরও উঁচুতে নিয়ে যেতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ একই দিনে ছাত্রলীগের দুটি শাখার উদ্বোধন করে। নব্যগঠিত এই দুটি শাখা হচ্ছে ভিসি উদ্ধারকারী রডলীগ এবং ব্যান্ডেজলীগ।

গত সপ্তাহে সাধারণ শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে ছাত্রলীগের কতিপয় দুষ্ট বালক-বালিকা আক্রমণ করে ও তাদের উচিত শিক্ষা দিয়ে দেয়। এই আক্রমণ, বিশেষ করে নারী শিক্ষার্থীদের উপর আক্রমণ, নিয়ে ক্যাম্পাস উত্তপ্ত হয়ে গেলে নানাবিধ ট্যাগ পাওয়া আন্দোলনরত ছাত্রছাত্রীরা ভিসি এবং প্রক্টরকে এর ব্যবস্থা নিতে সময় বেঁধে দেয়।

কিন্তু সময়কে যেহেতু বেঁধে রাখা যায় না, ভিসি এবং প্রক্টরের সময়ও হারিয়ে যায়। ফলে বেঁধে দেয়া সময়ে ভিসি কিংবা প্রক্টর কেউই কিছু করতে পারেন নি। পরবর্তীতে আন্দোলনরত ছাত্রছাত্রীরা গতকাল দুপুরে ভিসির কার্যালয় ঘেরাও করে। তারা শিক্ষার্থীদের উপর ছাত্রলীগের হামলার বিচার চায়। এমন সময় অবরুদ্ধ ভিসিকে বাঁচাতে হলিউড সুপারহিরো সিনেমা অ্যাভেঞ্জার্সের লাল নীল সুপারহিরোদের মতো ছাত্রলীগের বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত উইং ভিসি উদ্ধারকারী রডলীগ এসে হাজির হয়। তারা এসেই যার যার রড নিয়ে আন্দোলনরত ছাত্রছাত্রীদের প্রতিহত করে। 

এ সময় রডলীগ কর্মীদের সাথে আন্দোলনরত ছাত্রদের মধ্যে এক অদ্ভুত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। বিভিন্ন ভিডিও এবং ছবি দেখে নিশ্চিত হওয়া যায় যে, রডলীগের কর্মীরা রড নিয়ে শান্তিপূর্ণভাবেই আন্দোলনকারীদের প্রতিহত করছিল। তারা শান্তিপূর্ণভাবে জেনেভা কনভেনশনের সব নীতি মেনেই হামলায় অংশ নিয়েছিল বলে নিশ্চিত করেছেন রডলীগের নবনিযুক্ত সভাপতি।

এদিকে একই সময়ে ছাত্রলীগের কয়েকজন নারীনেত্রীকে আন্দোলনরত ছাত্রীদের উপর হামলা করতে দেখা গেছে। কিন্তু দিনশেষে ফেসবুকসহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে আক্রমণরত নেত্রীদেরকেই হাসপাতালে ব্যান্ডেজ বাধা অবস্থায় শুয়ে থাকতে দেখা যায়। হামলা করেও হাসপাতালে ভর্তি হবার এ অনন্য নজির স্থাপন করায় আবেগে আপ্লুত হয়ে 'দেশের কোথাও প্রশ্ন ফাঁস হয় না' তত্ত্বের জনক ছাত্রলীগ সভাপতি তৎক্ষণাৎ 'ব্যান্ডেজলীগ' নামে ছাত্রলীগের নতুন একটি শাখা খুলে ফেলার ঘোষণা দেন।

এ সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে নবগঠিত সঙগঠনটির কর্মীদেরকে 'হামলায় আমরা, হাসপাতালে আমরা, সর্বত্র আমরা ব্যান্ডেজের তরে!' স্লোগান দিতে দেখা যায়।
এদিকে আওয়ামী উদ্ধারলীগের এই শাখায় আমেরিকার অ্যাভেঞ্জার্স খ্যাত উদ্ধারকারী বাহিনীর সাংগঠনিক সম্পাদক আয়রনম্যান, ক্যাপ্টেন আমেরিকা প্রমুখ ব্যক্তিও যোগ দিতে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে।
রডলীগ নিয়ে জনৈক ছাত্রলীগ নেতা এই নতুন সঙগঠনের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, 'রডলীগ সুযোগসন্ধানী ও তেলবাজ ছাত্রদের জন্য এক অপার সম্ভাবনার দ্বার খুলে দিবে। ছাত্ররা বাঁশ এবং রডের পার্থক্য করতে শিখবে। তারা রডকে চিনতে শিখবে। এতে সামনের দিনগুলিতে কখনো কোন স্থাপনায় রডের বদলে বাঁশ ব্যবহার করা হবে না।'

রডলীগের অন্য একজন গুরুত্বপূর্ণ নেতা জানান, 'বিভিন্ন রড ও স্টিল কোম্পানি ইতোমধ্যেই স্পন্সর হবার জন্য আবেদন করেছে, আমরা ভেবে দেখছি।'

২৯১০পঠিত ...১৮:০৬, জানুয়ারি ২৮, ২০১৮

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
    আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

    আইডিয়া

    গল্প

    রম্য

    সাক্ষাৎকারকি

    স্যাটায়ার

    
    Top