eআরকি বাজেট বিশ্লেষণ ২০১৮: বাজেটের পর যে সব পরিবর্তন লক্ষ্য করা যেতে পারে

৯৫৮ পঠিত ... ১৬:২৯, জুন ০৮, ২০১৮

সংসদে ঘোষণা করা হয়ে গেছে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট। নির্বাচনী বাজেট, উচ্চবিত্তদের সন্তুষ্ট করার বাজেট এমন নানান আলোচনা এবারের বাজেট নিয়ে। বাজেট যখন ঘোষণা হয়েছেই, এর প্রভাব গণমানুষের জীবনে তো পড়বেই! কিছু জিনিসের দাম বেড়েছে, কমেছে অনেক কিছুর দাম। জনজীবনে কী কী প্রভাব পড়তে পারে এই বাজেটের? নিজ নিজ ঈদ-বাজেট সংক্রান্ত দুশ্চিন্তা ভুলে দেশের চলমান অর্থবছরের বাজেটের প্রভাব নিয়ে ভাবতে বসেছিলো eআরকির অর্থনীতি গবেষক দল!

১# ফোনে দেখা দিতে পারে চার্জসংকট

বাজেটের পর বাড়বে ফোনের চার্জার, ব্যাটারি এসবের দাম। যারা অনেকদিন ধরে অন্যদের চার্জার ব্যবহার করে ফোন চার্জ করছেন, তাদের এ বছরও নতুন চার্জার কেনা না হতে পারে। ফলে বছরজুড়েই অনেকের ফোনে চলবে চার্জসংকট, অনেকের ফোনই হুটহাট বন্ধ পাওয়ার সম্ভাবনা থাকবে।

২# বিলুপ্ত হয়ে যেতে পারে আইপিএস

কদিন আগেই জনৈক মন্ত্রী বলেছেন, দেশে কোনো লোডশেডিং নেই। এর মধ্যে আবার বাজেটের পর বাড়বে আইপিএসের দাম! দেশে লোডশেডিং যদি আসলেই না থাকে, চড়া দামে মানুষ কেন কিনবে আইপিএস? সে হিসেবে দেশ থেকে বিলুপ্ত হতে পারে আইপিএস অধ্যায়, আইপিএসের যুগ পরিণত হতে পারে ইতিহাসে!

৩# মিস্টার ম্যাঙ্গো চকলেটের ব্যবসা অপরিবর্তিত থাকবে

বাজেটের পর বাড়বে সিগারেটের দাম। ১১ টাকার সিগারেট এখন হয়ে যাবে ১২ টাকা। এর মানে দোকানিকে ১২ টাকা দেয়ার পর তিনি যে এক টাকার কয়েনের বদলে ফেরত দেন একটি এক টাকা দামের মিস্টার ম্যাঙ্গো, সে সুযোগ আর থাকছে না। তবে এতে মিস্টার ম্যাঙ্গো বা এক টাকার চকোলেটের ব্যবসায় বিশেষ প্রভাব নাও পড়তে পারে। ৮ টাকার সিগারেটের দামও তো বেড়ে ৯ টাকা হচ্ছে, নাকি?

৪# মোটা মানুষের সংখ্যা বাড়তে পারে

বেড়ে যেতে পারে গ্রীন টি-এর দাম। যারা চীনদেশীয় নানান বিজ্ঞাপনে কনভিন্সড হয়ে গ্রীন-টি নামক হালকা মিষ্টি গরম পানি গলধঃকরণ করে স্লিম হওয়ার চেষ্টা করছিলেন, তারা উচ্চ দামে গ্রীন টি না কিনে বরং হতাশ হয়ে শুরু করতে পারেন স্ট্রেস ইটিং। হয়তো এ কারণেই আগামী এক বছর দেশে মোটা মানুষের সংখ্যা বেড়ে যেতে পারে!

 

৫# ড্রাগ ওভারডোজের কারণে অসুস্থতা বাড়তে পারে

কমছে ওষুধ এবং চিকিৎসা উপকরণের দাম। মাগনা পেলে বাঙালি নাকি আলকাতরাও খায়! বাঙালির এমন ট্র্যাক রেকর্ড বিবেচনা করলে নতুন একটি বিপর্যয়ের আশঙ্কা তৈরি হয়। সস্তায় পাওয়া যাচ্ছে দেখে কেউ কেউ একটা ট্যাবলেটের বদলে পুরো এক পাতা ট্যাবলেট খেয়ে ফেলতে পারেন। যারা প্যারাসিটামল দুই বেলা খাচ্ছিলেন, হতে পারে তাদের কেউ এখন তা খাবেন চার, পাঁচ কিংবা ছয়বেলা। তাই ড্রাগ ওভারডোজের কারণে কেউ অসুস্থ হতেই পারেন। তবে আশার কথা হলো, চিকিৎসার ব্যয়ও কমতে পারে! 

৬# জন্ম নিতে পারে হাজারখানেক নতুন লেখক

ফেসবুক কিংবা ফেসবুকে বাংলা লেখার সিস্টেম আসার পর থেকে বাংলায় লেখকসংখ্যা কবি ও কাকের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়তে শুরু করেছে। নতুন বাজেটের পর বলপয়েন্ট কলম আর কি-বোর্ড, কমতে পারে দুই জিনিসের দামই! তাই আগামী বইমেলায় আরও পাঁচ-দশ হাজার নতুন লেখকের বই দেখলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না!

৭# ব্যাচেলররা বিয়ে করতে অনাগ্রহী হতে পারে

বাড়তে পারে আসবাবপত্রের দাম। ব্যাচেলরদের তো আর ওসব লাগে না, মেঝেতে একখান তোষক পেতে শুয়ে থাকলেই হয়। আর আলনা, টেবিল ইত্যাদি যাবতীয় আসবাবের প্রক্সি হিসেবে প্লাস্টিকের চেয়ার তো আছেই। কিন্তু বিয়ে করতে হলে আসবাবপত্র তো কিনতেই হয়। ব্যাচেলররা বোধহয় তাই আরও এক বছর ব্যাচেলরই থাকতে চাইবেন...

৮# ভর্তি পরীক্ষায় সি-ইউনিটে প্রতিযোগিতা বাড়তে পারে

এই বাজেট সুবিধা দিচ্ছে ব্যাংক মালিকদের। ব্যাংকের করপোরেট করহার কমানো হয়েছে আড়াই শতাংশ। এর মানে ব্যাংকিং খাতের উন্নতি হতে পারে, অর্থাৎ ইয়াং জেনারেশনের কাছে ডাক্তার-ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার চেয়ে 'ব্যাংকে চাকরি' হয়ে যেতে পারে লোভনীয় পেশা। অনেকেই বুয়েট-মেডিকেল ছেড়ে তাই সিদ্ধান্ত নিতে পারে বিবিএতে ভর্তি হওয়ার, বিবিএ ফিরে পেতে পারে দীর্ঘদিনের হারানো জৌলুস! তাই এবারের ভর্তি পরীক্ষায় ঢাবি সি ইউনিটসহ বিজনেস স্টাডিজ ফ্যাকাল্টিগুলোতে প্রতিযোগিতা বাড়তেই পারে!

৯# লেখাপড়া ছেড়ে দিতে পারে অনেকেই

ছোটবেলা থেকে লেখাপড়ার ব্যাপারে বেশিরভাগ শিশুরই শোনা প্রথম মোটিভেশনাল স্পিচ- 'লেখাপড়া করে যে, গাড়ি ঘোড়া চড়ে সে'! এর একখানা আপডেটেড ভার্সনও আছে এমন- 'লেখাপড়া করে যে, বাড়ি গাড়ি করে সে'! কিন্তু এ বছরের বাজেটের পর বাড়ি-গাড়ি থাকলেই দিতে হবে সারচার্জ! বাড়ি-গাড়ি থাকলেই মোট করের আরও ১০ শতাংশ সারচার্জ দিতে হবে। এর মানে, কেউ কেউ এখনই ডিমোটিভেটেড হয়ে পড়াশোনা ছেড়ে দিতে পারে। বাড়ি-গাড়ি মানেই তো বাড়তি খরচ!

১০# গায়ের দুর্গন্ধ বাড়তে পারে

এমনিতেই এ বছর যা গরম! তার মধ্যে দাম বাড়তে পারে সুগন্ধির! এ দেশের মানুষ খুব বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া সুগন্ধি তো ব্যবহার করেনই না, ব্যাচেলরদের কথা না বলাই ভালো। এ বছর তাই আশপাশের মানুষের শরীর থেকে পেতে পারেন আগের চেয়েও বেশি দুর্গন্ধ!

১১# এনার্জিহীনতায় ভুগতে পারে জনগণ

দাম বাড়তে পারে এনার্জি ড্রিংকের। মানুষ এখন সহজে এনার্জি ড্রিংক পান করতে চাইবেন না নিশ্চয়ই! তাতে দেশ ও জাতি পড়তে পারে সাময়িক এনার্জিহীনতায়...

১২# বেড়ে যেতে পারে প্রতিবন্ধী সংখ্যা

এই বাজেটে প্রতিবন্ধীদের নানান রকম সুবিধা দেয়া হয়েছে। প্রতিবন্ধীবান্ধব হাসপাতালকে কর দিতে হবে ৫ শতাংশ কম! অনেকেই যেমন প্যাডেল না মেরে রিকশা চালানোর সুবিধার্থে রিকশায় ইঞ্জিন বসিয়ে পেছনে ছোট্ট করে 'প্রতিবন্দী' লিখে রাখেন, এ বছর বেড়ে যেতে পারে এমন 'প্রতিবন্দী' কিংবা নকল প্রতিবন্ধীদের সংখ্যা (যদিও তারা প্রতিবন্ধী বটে, বুদ্ধি এবং বিবেক প্রতিবন্ধী!)

১৩# ছেলেমেয়েদের বাজারে যাওয়ার অভ্যাস গড়ে উঠতে পারে

অনলাইনে এমনকি ফেসবুকেও পণ্য কেনাবেচা করলে ৫ শতাংশ হারে ভ্যাট দিতে হবে। অনলাইন বাজার যখন একেবারে মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে, সে সময় এই ভ্যাটের ধাক্কায় আবারও ফিরে আসতে পারে অফলাইন বাজারের রমরমা দিন! অনলাইনে পণ্য না বেচে চাল-ডাল, খাবার-দাবার এমনকি বিভিন্ন টি-শার্ট, গয়না, ব্যাজ, রিস্টব্যান্ডের দোকানও রাস্তার পাশে গজিয়ে উঠতে দেখা যেতে পারে। অনলাইনের বাজার ভালো না দেখে বাজারবিমুখ ছেলেমেয়েদের বাজারে যাওয়ার অভ্যাস গড়ে উঠতে পারে, রিস্টব্যান্ড কিনতেও ছেলে বাজারে যাচ্ছে দেখে মায়েদের মুখে ফুটতে পারে হাসি!

১৪# স্কুলে ভর্তি হতে পারে ভার্সিটির ছাত্ররা

কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান স্কুলবাস আমদানি করতে চাইলে বাস আমদানিতে বিশেষ শুল্কসুবিধা দেবে সরকার। তাই স্কুলগুলোতে বাড়তে পারে স্কুল্বাস সুবিধার পরিমাণ, সেই সুবিধা নিতে ভার্সিটির ছাত্ররা যে আবারো স্কুলে গিয়ে ভর্তি হবেন না, তা কি আর জোর দিয়ে বলা যায়!

১৫# চুম্বনে অনীহা দেখা দিতে পারে

বাড়বে লিপস্টিকের দাম। এর মানে টাকা বাঁচাতে চাইলে একবার ঠোঁটে মাখা লিপস্টিক সহজে না মোছাই ভালো। মেয়েরা তাই চুম্বনে সাময়িক অনাগ্রহী হতে পারেন। প্রেমিকদের জন্য দুঃসংবাদ বটে। তবে লিপস্টিক গিফট করার প্রতিশ্রুতির সুবিধাও তারা পেতে পারেন যদিও...

১৬# বন্ধুদের হাতে নিত্যনতুন মোবাইল ফোন দেখতে হবে না

দাম বাড়তে পারে আমদানিকৃত মোবাইলের। যে সব বড়লোক বন্ধুদের হাতে প্রতি সপ্তাহে নতুন নতুন স্মার্টফোন দেখতে দেখতে আপনি বিরক্ত, তারা বোধহয় এবার একটু থামতে পারে! যারা এই লেখকের মতো দীর্ঘদিন ধরে নকিয়া ১২০০ ব্যবহার করে চলেছেন, তাদের জন্য সুখবর বটে! 

১৭# ছোলার ব্যবহার বাড়তে পারে

বিদেশ থেকে আমদানি করার বাদামের দাম বাড়তে পারে। তার মানে মদ্যপানের সময় যাদের প্রিয় 'সহখাদ্য' ছিল বাদাম, তারা এবার ছোলার দিকে ঝুঁকবেন, বেশি মাতাল হলে ঝুঁকতে গিয়ে পড়েও যেতে পারেন!

১৮# সিঙ্গাড়ার বিক্রি কমতে পারে

বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে সসের দাম! আর সস ছাড়া কি আর সিঙ্গাড়া শান্তিমতো খাওয়া যায়!

১৯# হেলিকপ্টার কিনতে পারবেন না

জ্যামে বসে যতই ভাবুন না কেন, 'অনেক বড়লোক হলে একটা হেলিকপ্টার কিনবো', হেলিকপ্টার সুবিধা নেয়ার ক্ষেত্রে কর বসানো হয়েছে ২০ শতাংশ। অনন্ত জলিলও পরবর্তী সিনেমায় হেলিকপ্টারওয়ালা দৃশ্য এড়িয়ে যেতে পারেন!

২০# ইনস্যুরেন্সওয়ালারা আরও বিরক্ত করতে পারে

বাজেটে বিমা প্রতিনিধির ওপর থেকে তুলে নেয়া হয়েছে ভ্যাট। যারা ইনস্যুরেন্সওয়ালাদের জোরাজুরির উপর অলরেডি বিরক্ত, এ বছর তাদের বিরক্তি আরও বাড়তে পারে। ডেসটিনি-ওয়ালাদেরও আবার মাঠে নামতে দেখা বিচিত্র কিছু নয়!

২১# বিকিনি পরার প্রচলন আসতে পারে

যে কোনো পোশাক কিনতে দিতে হবে আগের চেয়ে ১ শতাংশ বেশি কর। এ বছর গরমও যা পড়েছে, গায়ে অতিরিক্ত পোশাক রাখার বিশেষ ইচ্ছাও কারো নেই। তাই কম পোশাক পরার চল শুরু হতে পারে, ছেলেদের ফ্যাশন হতে পারে হাফ প্যান্ট ও স্যান্ডো গেঞ্জি। মেয়েরা ভ্যাট দেয়ার ভয়ে কম পোশাক বা বিকিনি পরতেও আগ্রহী হতে পারেন।

২২# কাজের বুয়াদের বাচ্চা নিয়ে পালানোর সুযোগ কমছে

শিশু দিবাযত্ন কেন্দ্র তৈরি করে যদি কেউ আয় করেন, তাহলে সেই আয় করমুক্ত রাখার প্রস্তাব করা হয়েছে। কর্মজীবি মায়েরা তাই শিশুকে বুয়ার কাছে না রেখে বেছে নিতে পারেন ডে-কেয়ার সেন্টার। অসৎ বুয়াদের জন্য দুঃসংবাদ!

২৩# আশেপাশে দেখতে পারেন মোটাতাজা গরু

এমনিতেই দেশে গরু ছাগলের সংখ্যা বাড়ছে। এর মধ্যে গরুর খাদ্যকেও করা হয়েছে ভ্যাটমুক্ত। সবুজ ঘাস না পেলেও গরুদের তাই আর চিন্তা নেই, একবার খেয়ে দিনের পর দিন জাবর কাটতে হবে না। খেয়েদেয়ে গরুরা হয়ে যেতে পারে মোটাতাজা, আর এর ফলে যে মানুষজন আরও মোটা হবে তা বলাই বাহুল্য!

২৪# হাঁটতে হবে বহুদূর

উবার-পাঠাও বা যেকোনো রাইড শেয়ারিং সার্ভিস ব্যবহারে দিতে হবে ৫ শতাংশ ভ্যাট। রাজা (সিএনজিওয়ালা) বাদশাহদের (রিকশাওয়ালা) সঙ্গে পেরে না উঠে যে উবার-পাঠাও নিয়ে খরচ বাঁচাবেন, এমন সুযোগ আর নেই! উপায় না পেয়ে এখন সম্ভবত হেঁটেই পাড়ি দিতে হবে বহুদূর পথ!

২৫# বাড়তে পারে যৌথ পরিবার

বাজেটের পর ছোট ফ্ল্যাটে ব্যয় বাড়বে, ব্যয় কমবে মাঝারি ফ্ল্যাটে। তাই একক পরিবারের যুগ থেকে খরচ কমাতে অনেকেই আবারও ফিরে যেতে পারেন 'আজ রবিবার' নাটকের মতো যৌথ পরিবার যুগে!

২৬# টেকো মানুষ বেশি দেখা যেতে পারে

এই বাজেটে বাড়ানো হয়েছে চুল পড়ারোধক পণ্যসামগ্রীর দাম। তাই অনেকের মাথার অবস্থাই এখন হতে পারে এমন-

৯৫৮ পঠিত ... ১৬:২৯, জুন ০৮, ২০১৮

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

কৌতুক

গল্প

রম্য

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top