সিঙ্গেলরা যেভাবে পালন করবেন গোটা ভ্যালেন্টাইন সপ্তাহ: একটি eআরকি ভ্যালেন্টাইন গাইড

৫১৩পঠিত ...২১:৩২, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৮

সিঙ্গেল হওয়া কোনো পাপ নয়। কোনো অন্যায় নয়। একজন মানুষ সিঙ্গেল হতেই পারে। এজন্য কি থেমে থাকবে তার ভ্যালেন্টাইন? তার কি সাধ নেই, আহ্লাদ নেই? কাপলদের ভীড়ে পুরো সপ্তাহ কি সে ঘুরবে মুখ লুকিয়ে, বুকে দীর্ঘশ্বাস চেপে? না, সিঙ্গেলদেরও আছে অধিকার। একজন আদর্শ সিঙ্গেল হিসেবে কীভাবে কাটাবেন ভ্যালেন্টাইনের এই সাতদিব্যাপী উৎসব? জানাচ্ছে eআরকি।

১. রোজ ডে


এই দিনে প্রেমিক প্রেমিকাদের মধ্যে গোলাপ ফুল আদানপ্রদানের ধুম পড়ে। এক্ষেত্রে আপনারা হাজার হাজার গোলাপ ফুল গাছ কিনে নিয়ে গোলাপ বেচতে বসে যেতে পারেন। একদম অন্যদের ভালোবাসা ভাঙিয়ে খাওয়ার মতো ব্যাপার। Love করলো অন্যরা, লাভ করলেন আপনি! সেই সঙ্গে গোলাপ দিবসটাও পালন করা হয়ে গেল!

২. প্রোপোজ ডে

কোনো মেয়েকে প্রোপোজ করলে চড় খাওয়ার সম্ভাবনা থাকতে পারে। চড় দিক আর না দিক, আছে প্রত্যাখ্যানের অপমানের ভয়! কিন্তু ভাই, বন্ধু হোক আর প্রেমিকা, সবাই ধোঁকা দিতে পারে। কিন্তু বিছানা বালিশ কখনো কাউকে ধোঁকা দেয় না, কখনো দেয় নি! (এই পর্যন্ত লেখার পর কান্না আসায় লেখক বিছানার চাদরেই চোখ মুছেছেন!) তাই প্রোপোজ করুন বিছানা এবং বালিশকে। খুব বগেশি ফিলিংসে থাকলে কোলবালিশ। যার কেউ নাই, তার আছে বিছানা ভালিশ। যার তাও নাই, তার আছে কোলবালিশ!

৩. চকোলেট ডে

প্রথমে দোকানে যান। একটাকা দিয়ে একটা ম্যাংগো ক্যান্ডি কিনুন এবং সেটা গলধঃকরণ করুন। ব্যাস! পালন করা হয়ে গেলো চকলেট ডে। অবশ্য নয় টাকা দামের যেকোনো জিনিস কিনলেও আপনার চকোলেট ডে পালন করা হয়েই যাবে, এক টাকার বদলে নিশ্চিতভাবে দোকানীর কাছ থেকে চকোলেটই পাবেন!

৪. টেডি ডে

টেডি ডে বলেই যে পুতুল ভাল্লুক কিনে সেটা স্পেশাল কাউকে দিতে হবে তেমন কোন কথা আছে? প্লেনের টিকেট কিনে আটলান্টিকা চলে যান এবং অরিজিনাল টেডি মানে মেরু ভাল্লুকের সঙ্গে কুতকুত খেলুন। প্লেনের টিকেটের টাকা না থাকলে ঘরে বসে 'উইনি দ্যা পুহ' দেখুন। গুগলে ভাল্লুক নিয়ে গবেষণা করুন।

৫. প্রমিস ডে

প্রমিস কী শুধু প্রেমিকার জন্যই হয়? প্রমিস করুন সবাইকে, সবকিছুকে! এই যেমন, আপনার মোবাইল ফোন কে প্রমিস করুন যে রেগে গেলে আপনি তাকে আর মাটিতে আছাড় মারবেন না। কী-বোর্ডের এন্টার বাটন কে প্রমিস করুন যে এরপর আর আপনি এটিকে অমন নির্দয়ভাবে প্রেস করবেন না।
(এই পর্যায়ে লেখক নিজেও একটা প্রমিস করেছেন, তিনি আর কোনোদিন এ রকম বাজে লেখা লিখবেন না!)

৬. হাগ ডে

বাসার কোলবালিশের সাথে কোলাকুলি করুন। কোলাকুলির জন্য কোলবালিশের ওপরে নিচে ডাইনে বামে চামে চিকনে আর কেউ নাই! এগুলা তো জানেনই, এগুলা কী বলে দেয়া লাগে নাকি...

৭. কিস ডে

আচ্ছা, ইয়ে, এই দিনটার কথা থাক। (দীর্ঘশ্বাস)

৮. ভ্যালেন্টাইনস ডে

আপনার প্রেমিকা নাই, আপনি সিঙ্গেল। আপনাকে গিফট কিনতে হবে না, টাইমলি ডেটিংই-এ পৌঁছতে হবে না। রেস্টুরেন্টের বিল দেয়ার হ্যাপা নেই। আপনি আজ বড় সুখী মানুষ! এই মিথ্যাগুলো বিশ্বাস করার প্রাণপণ চেষ্টা করুন! আর ইয়ে, খুব যদি বেশি খারাপ লাগে তাহলে রিয়াল আইডির স্বাদ ফেক আইডিতে মেটান। ফেসবুকে কোনো মেয়ের নাম দিয়ে একটা ফেক আইডি খুলুন। তারপর আপনার আসল আইডির সঙ্গে এই আইডির একটা রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস দিন। ভ্যালেন্টাইনস ডে তে ইন আ রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস। আহা! এবার অভিনন্দন কমেন্টের সাগরে ভাসুন।

ব্যস, দেখুন, কী সুন্দর কাটিয়ে দিলেন একটা গোটা ভ্যালেন্টাইন সিজন? ভালো লাগছে না? সিঙ্গেলদের ভ্যালেন্টাইন এমনে মনে মনেই কাটানো লাগে!

সতর্কতাঃ ১৪ ফেব্রুয়ারি রাতে ফেসবুকে হোমপেজে যাবেন না। কাপলদের ছবি দেখতে দেখতে পুরো সপ্তাহজুড়ে চালানো এই পুরো সাধনা চুরমার হয়ে যাবে। বুকে উপচে আসবে কান্নার স্রোত, নিজের অজান্তেই বিড়বিড় করে গেয়ে উঠবেন, 'প্রেমের সমাধি ভেঙে...'

৫১৩পঠিত ...২১:৩২, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৮

আরও eআরকি

পাঠকের মন্তব্য

 

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
    আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

    কৌতুক

    গল্প

    রম্য

    সঙবাদ

    সাক্ষাৎকারকি

    স্যাটায়ার

    evolution22
    
    Top