খালেদা জিয়াকে নিয়ে হলিউড থেকে ঢালিউডে যে সব সিনেমা নির্মিত হতে পারে

১৩৯৬পঠিত ...২১:২৯, ফেব্রুয়ারি ০৯, ২০১৮

খালেদা জিয়া এখন জেলে। তিনি কি রাজনীতিতে ফিরে আসবেন আবার? নাকি থাকবেন শুধুই ইতিহাসের পাতায়? আমাদের জানা নেই। তবে তার সিনেমাটিক গল্প নিয়ে হলিউড কিংবা ঢালিউডে বায়োপিক টাইপ সিনেমা নির্মিত হতেই পারে! কী হতে পারে সে সব সিনেমা, কেমন হতে পারে সেগুলোর গল্প, সেগুলোই ভাবতে চেষ্টা করেছে eআরকির চলচ্চিত্র গবেষক দল!

১#

একসময়ের পরাক্রমশালী সরকারপ্রধান, রেকর্ড পাঁচটি জন্মদিনের মালিক, প্রতি ঈদের পরই যিনি আন্দোলনের ডাক দিয়ে থাকেন, সেই আপোসহীন নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে জেলখানায় গেলে তার জীবনে যে নতুন বাস্তবতার সৃষ্টি হয় তা নিয়েই এই পূর্ণদৈর্ঘ্য বাংলা ছায়াছবি 'গোলাপী is the new Black'! এ ছবিতে 'গোলাপী' ও 'কালো' রঙ দুটি যথাক্রমে বেগম জিয়া এবং সরকারী দুঃশাসনের প্রতীকী হিসেবে দেখানো হয়েছে। জালিম সরকার গোলাপী রঙটিকেও অন্ধকারে ঢেকে দেয়ার ফলে সৃষ্ট ঘটনাপ্রবাহের মাধ্যমে ছবির গল্প এগিয়ে চলে।
ছবিটি সরকারী অনুদানে নির্মিত। পরিচালনা ও নির্দেশনাও করেছে সরকার।

২#

মেজর জিয়া দেশের প্রভাবশালী ব্যক্তিত্ব। নিজ থেকেই দেশের প্রধান হয়েছিলেন। কিন্তু ভবিষ্যতে তার পরিবারের সাথে কেমন ষড়যন্ত্র হতে পারে তারই আভাস দিতে মেজর জিয়ার সাথেই হয় ভয়ংকর ষড়যন্ত্র। একটা ভাঙা সুটকেস আর নতুন ফ্যাশনের কিছু জামা কাপড় রেখে পৃথিবীকে বিদায় দিতে হয়। এই নতুন ফ্যাশনের জামা কাপড় বিক্রি করা টাকা দিয়ে বেগম জিয়া খরিদ করেন এক সুবিশাল বাড়ি। সেখানে দুই ছেলেকে নিয়ে সুখে শান্তিতে বসবাস করতে থাকেন।
কিন্তু এই সুখ সরকারের গায়ে কাঁটা হয়ে বিধতে থাকে। অত্যাচারী সরকার তাকে উচ্ছেদ করে। নতুন বাসার সামনে বখাটে বালুর ট্রাক রেখেও হয়রানি করতে থাকে। এতকিছুর পরেও এই হিংস্র সরকার তাকে হেনস্থা করতে কবেকার কোন এতিম খানার টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগ এনে সালিশ বসায়। তবে কি এই টানাপোড়েনেই কাটবে গোলাপীর সংসার? মূলত পারিবারিক গল্প নির্ভর হলেও এটি একটি সামাজিক-রাজনৈতিক ড্রামা!

৩#

ছবিটির কেন্দ্রীয় চরিত্র বেগম জিয়া একটি দুর্নীতি মামলার জের ধরে চলে যান জেলে। কিন্তু তিনি জেলে থাকলেও তারই একজন লুক অ্যালাইক জেলের বাইরে থেকেই প্রতি ঈদের পর দিতে থাকেন আন্দোলনের ঘোষণা। তবে বাইরে যিনি আছেন, তিনি কে? তিনি কি ছদ্মবেশী মীর্জা ফকরুল? নাকি সত্যিই বেগম জিয়ার কোনো আয়না? এমনই থ্রিলার গল্প নিয়ে মুভি 'আয়নাবাজি'!

৪#

মূলত এটি একটি ইংরেজি ভাষার হরর ফ্যান্টাসি সিনেমা। নানাবিধ অত্যাচার, নিপীড়ন এবং অত্যাচারের পর সরকার প্রহসনের আদালত বসিয়ে বেগম খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদন্ড দেয়। অথচ রায় প্রকাশের পর তাকে পাঠানো হয় পরিত্যক্ত হয়ে যাওয়া ঢাকা সেন্ট্রাল জেলে। পরিত্যক্ত এই জেলখানায় একলা একলা অশরীরী সব কয়েদীদের সাথে বেগম জিয়ার যে ভুতুড়ে জীবন শুরু হয় তা নিয়েই এগিয়ে চলে ছবিটির গল্প। ছবির নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন স্বয়ং বেগম খালেদা জিয়া। পরিচালনা, নির্দেশনা ও চিত্রনাট্য এবং আরও যা যা করা যায় সব করেছে কারা অধিদপ্তর।

৫#

স্বামীর অকাল মৃত্যুর পর স্বামীর রেখে যাওয়া একটা ভাঙা সুটকেস আর দুই শিশুসন্তানকে নিয়ে এক টাকার একটি বাড়িতে বসবাস করতে থাকেন বেগম জিয়া। সব রকমের প্রতিকূলতা পেরিয়ে তিনি রাজনীতি করেন, সরকার প্রধান হন। কিন্তু ক্ষমতার বদল হলেই বেগম জিয়া এবং তার বড় ছেলে বিশিষ্ট খাম্বা ব্যবসায়ী তারেক রহমানের উপর নেমে আসতে থাকে একের পর এক মামলা হামলা। এক পর্যায়ে বড় ছেলেকে মামলার হাত থেকে বাঁচাতে বিদেশ পাঠিয়ে দেন। আর ছেলে ব্রিটেন বসে দেখতে থাকেন তার মা কীভাবে আসামী হয়ে যান। তখন বড় ছেলে কাঁদতে কাঁদতে দেশে ফোন করে মির্জা ফখরুলের কাছে জানতে চান, তার মা কেন আসামী? এমনই মাতা-পুত্রের সুখ দুঃখের টানাপোড়েনের গল্প নিয়ে চলচ্চিত্র, মা কেন আসামী!

১৩৯৬পঠিত ...২১:২৯, ফেব্রুয়ারি ০৯, ২০১৮

আরও eআরকি

পাঠকের মন্তব্য

 

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
    আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

    কৌতুক

    গল্প

    রম্য

    সঙবাদ

    সাক্ষাৎকারকি

    স্যাটায়ার

    evolution22
    
    Top