পাড়া-মহল্লার ব্যাডমিন্টন খেলার ১০টি নিয়ম

১৭৭১পঠিত ...১৭:১৬, ডিসেম্বর ০৩, ২০১৭

বছর ঘুরে চলে এসেছে শীত, আবারও এখন পাড়া-মহল্লায়, রাস্তার এক পাশে কিংবা মাঝখানেই, ছাদে কিংবা গ্যারেজে 'মৌসুমী' খেলা ব্যাডমিন্টন খেলার মৌসুম! কিন্তু ব্যাডমিন্টন খেলার আন্তর্জাতিক নিয়ম আর 'লোকাল' নিয়ম কিন্তু এক না। শীতের মৌসুমে পাল্লা দিয়ে ব্যাডমিন্টন খেলে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে হলে পাড়া-মহল্লা বা বাংলাদেশের লোকাল পর্যায়ের ব্যাডমিন্টন খেলার নিয়মগুলো জেনে নিতে হবে। সেই নিয়মগুলোই গবেষণা করে আবিষ্কার করেছে eআরকির পাড়া-মহল্লার ক্রীড়া গবেষক দল।  

১#
নেট বলে যেহেতু কিছু নাই, নেট ব্যবহারের প্রশ্নই আসে না। পছন্দমত জায়গা বেছে চক কিংবা ইট দিয়ে দাগ দেয়া হবে। সেই দাগের দুই পাশে নির্দিষ্ট কদম হেঁটে কোর্টের দৈর্ঘ্য নির্ধারণ করা হবে। আয়তনের ক্ষেত্রে রোডের প্রশস্ততাই স্ট্যান্ডার্ড পরিমাপ হিসেবে নির্ধারিত।

২# 
শাটল কর্ককে নিজেদের সীমানা অতিক্রম করানোর জন্যে শাটল কর্ক বাতাসে থাকা অবস্থাতেই দুইবার মারা যাবে। এ ক্ষেত্রে কোন পয়েন্ট কাটা যাবে না। এটাকে ডাবল টাচ বলে।

৩#
কর্ক গাছে আটকে গেলে নামাবার জন্যে সবসময় একটা বাতিল ও পুরনো ব্যাট থাকবে ছুঁড়ে কর্ক নামানোর জন্যে।

৪#
কোন দল পরপর তিনটা পয়েন্ট পেলে সেই দল বাধ্যতামূলকভাবে অন্য দলকে খানিকটা খেলবার সুযোগ করে দিবে। একটা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত কোন চাপ মারা যাবে না

৫#
যেহেতু কোর্টের প্রস্থ= রাস্তার প্রস্থ, সুতরাং, কোর্টের বাইরে কর্ক যাওয়া মানে পাশের বিল্ডিংয়ে আটকে যাওয়া। যার দোষে আটকে গেছে তাকেই আনতে হবে।

৬#
কোন দলের লম্বা খেলোয়াড় বিপক্ষ দলের বেঁটে খেলোয়াড়কে চাপ মারতে পারবে না।

৭#
খেলোয়াড় সংখ্যা চারের অধিক হলে নাম্বারিং করে জোড়-বিজোড়ে খেলা হবে।

৮#
একই দলে দুইজনের বেশি লম্বা খেলোয়াড় থাকতে পারবে না।

৯#
ফার্স্ট কোর্ট-সেকেন্ড কোর্ট-থার্ড কোর্ট এইসব মিডিয়ার সৃষ্টি। কর্ক মিস করলেই পয়েন্ট।

১০#
ছোটদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য: বডি টাচ নাই।

অলংকরণ: রাকিব রাজ্জাক

১৭৭১পঠিত ...১৭:১৬, ডিসেম্বর ০৩, ২০১৭

আরও eআরকি

পাঠকের মন্তব্য

 

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
    আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

    কৌতুক

    গল্প

    রম্য

    সঙবাদ

    সাক্ষাৎকারকি

    স্যাটায়ার

    evolution22
    
    Top